প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:অপরাজিত - বিভূতিভূষণ বন্দ্যোপাধ্যায়.pdf/১৭৭

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


Vurrywfairs SAq একবারটি তুলিয়াছিল। লীলা বলিল -সেদিন রাত্রে আমি তাঁর মাখে কথাটা শািনলাম, আজ সকালেই আপনাকে পত্র পাঠিয়ে দিয়েছি, আপনি রাজী আনেিছন তো ? আসন, দাদামশায়ের কাছে আপনাকে নিয়ে যাই, ও’র একখানা চিঠিতে হয়ে যাবে । কৃতজ্ঞতায় অপর মন ভরিয়া গেল। এত কথার মধ্যে লীলা চাকুরি যাওয়ার কথাটাই কি ভাবে মনে ধরিয়া বসিয়াছিল। লীলা বলিল-আপনি আজ দােপরে এখানে না খেয়ে যাবেন না! আসন, -পাখাটা দয়া ক’রে টিপে দিন না । কিন্তু, চাকুরি হইল না । এসব ব্যাপারের অভিজ্ঞতা না থাকায় লীলা একটু ভুল করিয়াছিল, দাদামশায়কে বলিয়া রাখে নাই অপর কথা। দিন দাই আগে “জুলুক লওয়া হইয়া গিয়াছে। সে খাব দুঃখিত হইল, একটু অপ্রতিভও হইল। অপর দঃখিত হইল। লীলার জন্য । বেচারী লীলা ! সংসারের কোন অভিজ্ঞতা তাহার কি আছে ? একটা চাকুরি খালি থাকিলে যে কতখানা উমেদারীর দরখাস্ত পড়ে, বড়লোকের মেয়ে, তাহার খবর কি করিয়া জানিবে ? লীলা বলিল-আপনি এক কাজ করন না, আমার কথা রাখতে হবে কিন্তু, ছেলেবেলার মত একগয়ে হলে কিন্তু চলবে না-প্রাইভেটে বি. এন্টা দিয়ে দিন । আপনার পক্ষে সেটা কঠিন না কিছু । অপ বািলল-বেশ দেব। লীলা উৎফুল্প হইয়া উঠিল-ঠিক ? অনার ব্রাইট ? --অনার ব্রাইট । শীতের অনেক দেরী, কিন্তু এরই মধ্যে লীলাদের গাড়িধারান্দার পাশে জাফরিতে ওঠানো মাশালনীলের লতায় ফুল দেখা দিয়াছে, বারান্দার সিড়িয় দ’পাশের টবে বড় বড় পল নিরেন ও ব্ল্যাক প্রিন্স ফুটিয়াছে । বৰ্ষশেষে চাইনিজ ফ্যান পামের পাতাগালো ঘন সবাজ । পদ্মপকূর রোডে পা দিয়া অপর চোখ জলে ভরিয়া আসিল । লীলা, ছেলেমানষি লীলা-সে কি জানে সংসারের রাঢ়তা ও নিম্ঠর সংঘর্ষের কাহিনী ? আজি তাহার মনে হইল, লীলার পায়ে একটা কটা ফুটিলে সেটা তুলিয়া দিবার জন্য সে নিজের সখি শান্তি সম্পণে উপেক্ষা ও অগ্রাহ্য করতে পারে। বিবাহের পর লীলার সঙ্গে এই প্রথম দেখা, কিন্তু দ“একবার বলি ধলি করিয়াও অপৰ বিবাহের কথা বলতে পারিল না, অথচ সে নিজে ভালই বোঝে ধে, । বলিতে পারিবার কোন সঙ্গত কারণ নাই । AW SR