পাতা:অমরনাথ (কৃষ্ণচন্দ্র রায় চৌধুরী).pdf/১১

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


$ অমরনাথ । অনেক কষ্ট্রে যদি একটু কাক নিদ্রার মত হল, তাও তখনই নেই। যেন গবা ছেলের পাঠ অভ্যাস করা ; এক প্রহর ঘ্যান ঘ্যান কোরে কোরে যদি বা একটু সড় গড় হল, তা যেই বই ঢেকেছে, আর অমনি जांमज्जांद्र बैंiफ्रेिंद्र भउ कूफू९ কোরে হোড়কে গিয়েছে। তাতে এই গ্রীষ্ম ; সমস্ত রাত্রের মধ্যে হাতের পাখা ছাড়ার ধৈা নেই। আবার মশারি ফ্যাল, তে। গরমিতে মর ; মশারি না ফ্যাল, তো যে রক্ত টুকু আছে, তা মশাকে হরিরলুট দাও। সেই প্রাতঃকালে একটু ঠাণ্ডা পড়ে, সেই সময়টি নিদ্রার আকর্ষণ হয়। মুতরাং বেলা হোযে পড়ে । রাধা। মহাশয় এবারকার গরমির কথা আর কিছু বোলবেন ন। এখনও চৈত্র মাস, তাতেই এই, আরও তো আস্ত কাল পোড়ে আছে । তৰে দেখুন দেখি মহাশয়, আপনি যে বলেন, বড় মানুষ হওয়া বড় পাপ। মনে কোরে দেখুন দেখি,—যারা বড় মানুষ, আজ কাল ভার কি মুখে আছে। তোফ খস টাটি লেগেছে, অনবরত পাখা চোল্‌ছে, বরফের জল খাচ্চে । সেখানে গেলে গরমি যে কাকে বলে, তা মনে ভেবেও আনা যায় না । যেমন রিপু আক্রাস্ত দেশের বাজা কেল্লায় বোসে রিপুব অল্ফালন তুচ্ছ করে, তেমনি ধনী লোকেরা আপন বৈঠকখানায় বোসে ঋতুর উপদ্রবে তাচ্ছল্য করে। ঋতু জন্য তাদের ক্লেশ হওয়া দুরে থাকুক, বরং ঋতু সকল তাদের আজ্ঞাকারী হেীয়ে সহায়তা করে। গবমি কালে শীত এসে গরমি হতে রক্ষা করে, আবার শীতকালে গরমি পাহারা{দিয়ে শীতকে প্রবেশ হতে দ্যায় না । ঘোষ । ভাল, ভাল, ভাল। আরে তোমার ষে বিলক্ষণ বক্ত তাশক্তি আছে দেখতে পাচ্ছি। শীত প্রহরী হেয়ে গ্রীষ্ম হতে রক্ষা করে, গ্রীষ্ম প্রহরী ছোয়ে শীত হতে রক্ষা করে। শামার বেটা রামা,