পাতা:অমরনাথ (কৃষ্ণচন্দ্র রায় চৌধুরী).pdf/১৬১

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


>&a অমরনাথ । এত দিন আমার বোধ ছিল যে এ সংসারে যে বিপদের কেবল মৃত্যু বই উপায় নাই, সেইই বিপদের চরম। এখন দেখতে পাই আমার বিপদ তাহতেও ভয়ানক। কেন না সে বিপদের তবু এক উপায় আছে, আমার এ বিপদের আদে উপায় নাই। তবে ষদি দৈব কোন ঘটনা দ্বারা আমার নিপাত হয়, তবেই হয়। যদি এই সময় এক প্রলয়কারিণী ঝটিক অণর ভূমিকম্প এক যোগে দুৰ্নিবার বল দ্বারা হিমালয়াদি প্রকাও পৰ্ব্বত সকল ছিন্নমূল করিয়া এককালীন এই মৃন্ময়ী পৃথিবীর উপর নিক্ষেপ কোরে ইহাকে রসাতল করে ; কিম্বা কোন নগর বেষ্টনকারী সম্রাটের আগ্নেয় অস্ত্র সমূহের ন্যায় যত আগ্নেয় পৰ্ব্বত সকল এই জগতের চতুর্দিকে স্বসজ্জিত হোয়ে এককালীন ঘোর তেজে অগ্নি জল ভস্মরাশি অণর প্রস্তর খণ্ড সকল বর্ষণ কোরে এই সংসারের জন্য পদার্থ সকল স্বংস করে, অথবা গ্রহ সমূহের মধ্যে এক সাধারণ বিপ্লব উপস্থিত হেীয়ে, এই পৃথিবীকে বিশ্বকর্ষণ প্রবন্ধ হোতে বিচ্ছিন্ন কোরে, অন্যান্য দৃঢ়তৰ গ্ৰহগণের সহিত পরস্পর আঘাতে চূর্ণ কোরে, পরমাণু রাশিতে নিবিষ্ট কোরে দ্যায়, তবেই আমার এ বিপদের উপায় হয়। তাও হবে না, আমিও অব্যাহতি পাব না । (পুনরায় ইতস্তত বিচরণ করিতে করিতে স্থির হইয়া ) আঁ্যা ! কি সৰ্ব্বনাশ ! ওঃ ! আমি তো যৎপরোনাস্তি অহঙ্কারী ! যৎপরোনাস্তি মদগৰ্ব্বী ! আমি কোথাকার একটা কীটস্য কীট, নগণ্যস্য নগণ্য, জঘন্যস্য জঘন্য হোঁয়ে, আমার বিপদ হয়েছে বোলে আমি ইচ্ছা কোচ্ছিলেম যে জগদীশ্বরের এই যে আনন্দময় জগৎ, যাতে আমা অপেক্ষ সহস্র গুণে শ্রেষ্ঠ সহস্র সহস্র ব্যক্তি আনন্দে বাস কোচ্ছে, এমন যে অচিস্ত্য রচনা, লয় হয় ! এর বড় অহঙ্কার আর সস্তবেন ! তবে এই অহঙ্কারের প্রতিফলের স্বরূপ এই বিপদ হয়েছে ! তা হওয়াই উচিত। কেন এমন দুষ্ট বাসনা হলো ! মরবাব উপায় তো ভুরি ভুরি অাছে। আমি কেন বোলালেম না যে আমার