পাতা:অমরনাথ (কৃষ্ণচন্দ্র রায় চৌধুরী).pdf/৩৩

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


令孩 অমরনাথ ! গণেশ । সব হয়েছে মেনে ভাল, কিন্তু বড় ক্লেশটা হয়েছে। গরমি, ধুল, লোকের ভিড়, আর ঠেলাঠেলি ; তাতে আবার—তোমার ওর নাম কি —বাতাসের নামটি নেই, যেন ভাব র দিতে লাগল ; আমার গার কাপড় গুল ঘামে ভিজে যোড়িয়ে গেল । শীতল । আঃ ! আমার তো একেবারে দমবন্দ হয়ে যাবার যে হল । আমি না পেরে শেষ ভিড়ের বাইরে গিয়ে হাওয়াতে একটু ডাড়িয়ে তবে ছাপ ছেড়ে বঁচি ! গণেশ। সেকি ? তুমি কখনৃ বাইরে গেলে ? অামাতে তোমাতে ইস্তক মাগতেই তো-তোমার ওর নাম কি-একেস্তার উড়িয়ে । শীতল। (স্বগত ) একি ? এ যে ন্যাজ মীড়ান সাপের মত উন্টে কামড় ধোল্পে । ( প্রকাশ্যে ) হুঁ, ঐ একে জায়গাতেই বটে, তবে কিনা উরই মধ্যে একটু পেচনে, অর্থাৎ যেখানে ভিড়টে কিছু কম। গণেশ। বিলক্ষণ ! তুমি কি বোলুচ হে? আমি লোকের ঠেলাঠেলিতে পোড়ে যাই বোলে,—তোমার ওব নাম কি—ববাবোর তোমার হাত ধোরে উড়িয়ে। তবে তুমি পেচনে ৰা যাবে কেমন কোরে—আর তোমার ওর নাম কি-এগনে বা যাবে কেমন কোরে ? তোমাতে আমাতে তো একেবারেই বেরিয়ে এলেম । শীতল। (স্বগত) বাপরে ! এ যে একেবারে বুকে ইটুে দিয়ে গল দেবে ধোল্লে । (প্রকাশ্যে) স্থা, ঐ আমিও তাই বোলচি যে, আমরা যখন বেরিয়ে এলেম, তখনই হাওয়া লেগে একটু ঠাণ্ড বোধ হতে লাগল। এঃ ! আপনার চুলে এত ধূলো লাগল কেমন কোরে ? (আপন চাদরের মুড়ো ধরিয়া বাড়িয়া দেয়। ) গণেশ। তা বুঝিচি, তুমি ঠোকে এখন ও কথাটা উড়িয়ে দেবাব চেষ্টা কোচ্চ ।