পাতা:অশনি সংকেত - বিভূতিভূষণ বন্দ্যোপাধ্যায়.pdf/২৪

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


Ro ' অশনি-সংকেত যাওয়ার যোগাড় হোল। তখন নতুন গাঁয়ের কােপালীদের সঙ্গে বাসদেবপরের হা আলাপ হয় গঙ্গাচরণের, কােপালীরা পাঠশালার মাস্টার চাইচে শনে গঙ্গাচরণ যেতে রা হয়। ওরাও খাব আগ্রহ করে নিয়ে যেতে চায়। সেই থেকেই নতুন গাঁয়ে বাস। অনঙ্গ বলে-কালী ঘািমলে নাকি ? বাবাঃ কি ঘািম তোদের ? মতি ঘমেজড়িত স্বরে বলে-বামন-দিদি, ঘামোও নি এখনো ? রাত যে পাইয়ে এ , ঘামিয়ে পড়ে। পাবে ফাসা হোেল- V --তোর মডু হােল পোড়ারমখীঅনঙ্গ-বেী ভাবছিল তার জীবনে কত জায়গায় যাওয়া হোল, কত কি দেখা হোল ! \ বয়সী ক'টা মেয়ে এমন নানা জায়গায় বেড়িয়েচে ? ওই তো তারই সমবারসী হৈম র;ে হরিহরপরে, তার বেশিরবাড়ীর গ্রামে। কোথাও যায় নি, কোনো দেশ দেখে নি । সে ভাবলো-ভালো কাপড় পরতে পারি নি, খেতে পাই নি তাই কি ? আমার ; এত জায়গা বেড়িয়েচে হৈম ? কত জায়গা। ধর হরিহরপর, সেখান থেকে ভাতছা! ভাতছালা থেকে বাসদেবপাের-তার পর এখন নতুনগাঁ । উঃ-কথাটা কালীকে বল জন্যে সে ব্যাকুল হয়ে উঠলো। ডাক দিলে-ও কালী, কালী, একটা কথা শোনা না ? মতি ঘমেজড়িত সম্বরে বললে-বামন-দিদি, তুমি জবালালে দেখােচ, ঘািমতি দেবা রাত্তিরে ? কালী ঘামিয়ে গিয়েচে অনেকক্ষণ, ওকে আর ডাকাডাকি কোরো না । পাইয়ে গেল যে । অনঙ্গ-বোঁ হেসে তার গায়ে একটা কাটি ছাড়ে মেরে বললে-দর পোড়ারমখীযে দশদিন অনগ এখানে রইল, এমন নিছক আনন্দের দটি দিন ওর জীবনে কতক আসে নি। চলে আসবার দিন মতি মািচনী কে’দে আকুল হােল। সে এ গাঁয়ে ২ থাকতে চায় না, অনঙ্গ-বেয়ের সঙ্গে চলে যাবে। কালী গোয়ালিনী আধ সের ভাল গা ঘি ও দটাে মানকচু নিয়ে এসে দিলে। মতি খেজর গড়ের পাটালি নিয়ে এলো খেং গাছের বাকলায় বোধে । গঙ্গাচরণ জিনিসপত্র দেখে বললে-"বাঃ অনেক সওদা করে এনেছ দেখািচঅনঙ্গ হাসি হাসি মাখে বললে-দাম দিতে হবে। আমাকে কিন্তু । --ভাল কথাই তো । কেমন দেখলে ? -অতি চমৎকার। আমার যে কি ভাল লেগেচে ! মতি এল, কালী এল, গাঁয়ের কি-বোঁ দেখতে এল -ওরা এখনো ভোলে নি আমাদের ? -ভুলে যাবে ? সবাই বলে এখানে এসে আবার বাস করন বামন-দিদি। হ্য পদ্মবিলের ধারে একখানা ঘর বাঁধো না কেন ? আমার বড় সাধ কিন্তু । -আবার ভাতছাল ফিরে যাবে ? সে হয় না। পাঠশালা জমে উঠেচে । এখন নড়া যায়, গেলেই লোকসান । --তুমি যা ভালো বোঝে। আমার কিন্তু বাপ, ওখানে একখানা ঘর বাঁধবার ইচ্ছে । w