পাতা:অষ্টাঙ্গ হৃদয় - বাগ্‌ভট.pdf/১০৩

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


• ऊर्थT३ ॥ অতীঃপর আমরা দ্রব্যাদি বিজ্ঞানীয় (রাসবীৰ্য্যবিপাকদিবিজ্ঞানীয়) অধ্যায় ব্যাখ্যা কৱিবযাহা আত্ৰেয়াদি মহর্ষিগণ বলিয়াছিলুেন ॥ ১ , , . BDBBSBBBDL sBDBDB DBL BDD suKDSS BDDDD DBBDDiS দ্রব্য ভিন্ন রসাদি থাকিতে পারে না। অতএব দ্রব্যই প্ৰধান ॥২ DDBDB BDDB D BB DBD DBBD D BiiDDDBS BDBDD BBDS আধাবীকৃত করিয়া উৎপন্ন হয়; জল তাঁহাদের উৎপত্তির প্রধান কারণ ; তদ্ভিন্ন অগ্নি বায়ু ও আকাশের সমবায় সম্বন্ধে সেই দ্রব্যের উৎপত্তি ও বিশেষ ( डिमरु ७ नानांवडॉवर) श्मा থাকে। সুতরাং সকল দ্রব্যই পৃথিবী জল অগ্নি পবন ও আকাশ এই পঞ্চ মহাভূতের সমবায়ে উৎপন্ন বলিয়া পঞ্চভূতাত্মক। এস্থলে আশঙ্কা হইতে পারে, যদি সমস্ত দ্রব্যই পঞ্চভূতাত্মক তাহা হইলে এই দ্রব্য পার্থিব এই দ্রব্য আপ্য এরূপ বলা হয় কেন ? এই হেতু বলা যাইতেছে যে, যে দ্রব্যে যে ভূত অধিক পরিমাণে থাকে, সেই ভূতের নামানুসারে দ্রব্যেরও সংজ্ঞা হয়। যেমন-যাহাতে পৃথিবীর আধিক্য আছে তাহাকে পার্থিব, যাহাতে জলের ভাগ অধিক আছে তাহাকে জলীয় ইত্যাদি বিশেষ সংজ্ঞা দেওয়া হয় ॥ ৩৪ ভূত সমূহের সম্মিলনে দ্রব্যের উৎপত্তি হয় বলিয়া কোন দ্রব্যই এক রসবিশিষ্ট নহে অৰ্থাৎ সকল দ্রব্যই অনেক রসবিশিষ্ট। দ্রব্যের স্থায় রসও পাঞ্চভৌতিক,সেই জন্য প্রতি দ্রব্যে মধুরাদি নানারসের স্বাদ উপলব্ধি হয়। তবে আধিক্যানুসারে কেহ মধুর কেহ লবণ নামে অভিহিত হইয়া থাকে। দ্রব্যসমূহ একরুসবিশিষ্ট মহে বলিয়া জ্যাদি রোগ সঙ্কলও একগোষবিশিষ্ট হয় না। কারণ মধুরাদি রসভেদে বাতাদি দোষ সকল কুপিত হইয়া থাকে ; সুতরাং সকল রোগেই ত্রিদোষের প্রকোপ অনুভূত হয়। তবে যে দোষের আধিক্য থাকে, সেই দোষানুসারে রোগের নাম হইয়া থাকে। যেমন সমস্ত জর ত্রিদোষজ হইলেও বায়ুর আধিক্য বাতিক, পিত্তের আধিক্যে পৈত্তিক ইত্যাদি । • রস ও অনুরক্স লুলু-যে দ্রব্যে যে রস স্পষ্টরূপে রসনেত্রিয়ে উপলব্ধ হয়, তাহাকে সেই রাসবিশিষ্ট বলা যায়। আর তাহাতে যে শ্বাস অস্পষ্ট ভাবে অনুভূত হয়, তাহাকে অনুরাস কহে। আরও, যে রসু ব্যক্তিরসাস্বাদনের কিঞ্চিৎ: পুরে অনুভূত হয়,তাতুকেও অনুরস বলা গিয়া থাকে | ৫৬ O . পৃথিব্যাদি পঞ্চমহাভূতাত্মক ও রসাশ্রয় দ্রব্যে গুরু লঘুপ্ৰভৃতি গুণ সকল বিদ্যমান থাকে। মধুৱাদি রসে গুর্বাদি গুণ ‘আশ্ৰিত ; নহে; তবে সাহচৰ্য্যবশতঃ মধুরাদি রসে গুর্বাদিগুণ সমূহের ব্যপদেশ করা যায়। ( যে দ্রব্যে মধুর রস আছে, তাহাতেই গুরুগুণ এবং যে দ্রব্যে অন্ন রস আছে, তাহাতে লঘুগুণ দেখা যায়। এইরূপ শ্বসও গুণ পরস্পর সহচর ভাবে একত্র থাকে বলিয়া মধুর রস গুরু অৱস লঘু এইরূপ কল্পদ্মা করা যায়। ফল কথা, রসে গুৰ্বিাদি Ve etGqF an I ) u q