পাতা:অষ্টাঙ্গ হৃদয় - বাগ্‌ভট.pdf/১০৯

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


»०म ताः ] সূত্ৰস্থান। @ዓ লবণস্কন্ধ । সৈন্ধব, সচল, কাল, বিট, করকচ, ঔদ্ভিদ, রোমক ও ক্ষারি লবণ, সীসা ও ক্ষার ( যবক্ষারাদি ) ইহারা লবণ বর্গের অন্তর্গত ॥ ২৬ তিক্তস্কন্ধ পটোলী, বলাডুমুর, বালা, বেণামূল, চন্দন, চিরতা, নিম, কটকী, তেগরপাদুকা, অগুরু, কুডুচি, করল, হরিদ্রা, দারুহরিদ্র, মুতা, মূৰ্বী, আক্‌নাদি, আপং, কাংসা, লৌহ, গুলঞ্চ, দুরালভা, বৃহৎ পঞ্চমূল, বৃহতী, কণ্টকারী, রাখালশশা, আতইচ ও বচ ইহারা fsvski 9isfsh riv কটুকঙ্কন্ধ। হিং, মরিচ, বিড়ঙ্গ, পঞ্চকোল ও খেততুলসী প্রভৃতি, হরিতক ( আদি প্রভৃতি) ছাগাদির পিত্ত ও মুত্র এবং ভেলা ইহাদিগকে কটুবৰ্গ কহে। ( সংগ্ৰহোক্ত মনঃশিলা, সর্ষপ ও কুষ্ঠাদি দ্রব্যও কটুকঙ্কন্ধের অন্তর্গত জানিবে)। ২৯ কষায়স্কন্ধ। হরীতকী, বহেড়া, শিরীষ, খেদির, মধু, কদম্ব যজ্ঞডুমুর, মুক্তা, প্রবাল, রসাঞ্জন, গিরিমাটী, কচিকয়েতবেল ( কেহ বলেন-বালা ও কয়েতবেল), খৰ্জ্জুর, মৃণাল, পদ্ম ও উৎপলাদি ( আদিশব্দে প্রিয়ঙ্গু লোধ প্রভৃতি বোদ্ধব্য) এইগুলি কষায় বৰ্গ ॥ ৩০ সম্প্রতি মধুরাদি বর্গের গুণ কথিত হইতেছে-মধুর দ্রব্য প্রায়ই শ্লেষ্মজনক ; কেবল পুরাতন শালিধান্ত, যব, মুগ, গোধূম, মধু, চিনি ও জঙ্গল মাংস ইহারা শ্লেষ্মবৰ্দ্ধক নহে। ৩১ প্ৰায় সমস্ত অমরস দ্রব্যই পিত্তজনক ; কেবল দাড়িম ও আমলকী পিত্তজনক নহে। সমস্ত লবণ দ্রব্যপ্রায়ই চক্ষুর, অহিতকারক ; কেবল সৈন্ধব লুবণ চক্ষুদ্র হিতকর। গুলঞ্চ ও পটােল ভিন্ন প্রায় সমস্ততিক্ত দ্রব্য এবং শুঠ পিপুল ও রসুন ব্যতীত প্ৰায় সমস্ত কটু দ্রব্য অত্যন্ত অবৃন্য ও বায়ুর প্রকোপকৰণ কষায়রাস দ্রবী প্রায়ই শীতবীৰ্য্যা ও মলের স্তম্ভন ; কেবল হরীতকী শীতবীৰ্য্য ও স্তৰূতকথরকজনহে ॥ ৩২-৩৪ . কটু অন্ন ও লবণরন্স যথাক্রমে উত্তরোত্তর উষ্ণবীৰ্য্য ; অর্থাৎ কটু উষ্ণ, অন্ন উষ্ণতর ও লবণ উষ্ণতম, আর তিক্ত কষায় ও মধুর রস ক্রমশঃ উত্তরোত্তর শীতবীৰ্য অর্থাৎ তিক্ত শীতবীৰ্য্য, কষায় শীতবীৰ্য্যতর ও মধুর। শীতবীৰ্য্যতম ৷৷ ৩৫ তিক্ত কটু ও কষান্নারস, পূর্ববৎ যথোত্তর, রুক্ষ ও মলস্তম্ভক এবং লবণ অন্ন ও মধুর রস ইহারা উত্তরোত্তর অধিক পূরিমাণে স্নিগ্ধ ও মলমুত্রবাত-নিঃসরক ৷৷ ৩৬৩৭ লবণরস অপেক্ষা কষায়রন্স গুরুতর এবং কন্যায় অপেক্ষা মধুর রস অত্যন্ত গুরু। অন্নারস লঘু অক্সরস অপেক্ষা কটুকুল লঘুতর ও কটু অপেক্ষা তিক্তাৱস লঘুতম || ৩৮৩৯ , এক্ষণে শরীর ধারণের উপযোগিত্বহেতু, রস সমূহের স্থূলতঃ সপ্তপঞ্চাশৰ (৫৭) প্রকার १८षांश्रं ७ ख्रिषष्टिं (७७) ७थकॉब्र क्ब्रन विष्टांशं रुद्र शाद्देश्र्छाछ् ॥ 8॥ মধুরাদি ছয় রস ঘিকসংযোগে অর্থাৎ দুই দুইটী রসের রংযোগে ক্ৰমে এক এক রসহীন হইয়া পঞ্চদশ প্রকার ৰােগ হয়, যথা—মধুর অন্ন, মধুর লবণ। তন্মধ্যে মধুর রসের পাঁচপ্রকার, মধুর রস ত্যাগ করিয়া অন্নারসের চারিপ্রকার, মধুর অক্স ত্যাগ করিয়া লবণ রসের তিন প্রকার, মধুর অন্ন ও লবণরস ত্যাগ করিয়া তিক্তরসের দুই প্রকার ও মধুরাদি রস চতুষ্টয় ত্যাগ করিয়া কাটুইসের একপ্রকার, সমুদায়ে পঞ্চদশ প্রকার সংযোগ হইয়া থাকে। আর ত্রিক সংযোগে ক্ৰমে এক একটী হীন হইয়া মধুর রস দশ প্রকারে, আল্লােরস ছয় প্রকারে, লবণ রস তিন প্রকারে