পাতা:অষ্টাঙ্গ হৃদয় - বাগ্‌ভট.pdf/৭৫

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


" Öሻ ማ# ! পৌণ্ডক (পুড়ি ) ইক্ষুরস সমস্ত ইক্ষুরস অপেক্ষা শৈত্য মাধুৰ্য্য ও প্রসাদগুণে শ্ৰেষ্ঠ । বংশ নামক ইফুর রস ইহা ‘অপেক্ষা কিঞ্চিৎ হীনগুণ বিশিষ্ট। শতপৰ্ব্বক, কান্তার ও নৈপালাদি ইক্ষু সমূহ বংশক ইক্ষু অপেক্ষা যথাক্রমে হীনগুণান্বিত। ইহাদের রস ঈষৎ ক্ষারযুক্ত, ঈষৎ कांवब्रम्, केष९ ङेक्ौर्वं ७ किंक्षि९ विशांशै॥ 88॥se . ዕ 9 °ኑ ফাণিত (মাৎগুড়)-গুরুপাক (ইক্ষুরস অপেক্ষা গুরু), অভিযুদী (শ্লেষ্মীজনক), ত্রিদোষ জনক ও মুদ্রবিশোধক ॥ ৪৬ . O S BBD S BDBD DDB SDiSDiiBS BDBDBDBDB D BDiDDBDBDBD SS DDB (প্ৰসমল) গুড় প্রভৃতি ক্রিমি মজা রক্ত মেদঃ মাংস ও কফজনক। ৪৭ eBB DD DBSLLL KK BDB DDL DBDBBD D BDDBDBSS 0L মৎস্তাণ্ডিকা, খণ্ড (খাড় ) ও সিতা (চিনি মিছারী) এই সকল দ্রব্য-বৃন্য, বাতন্ত্র, क्टझै१ ও রক্তপিত্ত রোগে হিতকর এবং ধৌত গুড় অপেক্ষা উত্তরোত্তর অধিক গুণ বিশিষ্ট ৷৷ ৪৯ দুরালভার চিনি-পূৰ্বোক্ত চিনির ন্যায় গুণান্বিত এবং তিক্ত-মধুর-কষায় রসবিশিষ্ট ॥ ৫০ সৰ্ব্বপ্রকার শর্করাই দাহ তৃষ্ণা বমি মুছে ও রক্তপিত্ত নাশক ॥ ৫১ ইক্ষুবিকারের (ইক্ষুরস জাত দ্রব্য সমূহের) মধ্যে শর্কর শ্রেষ্ঠ এবং ফাণিত নিকৃষ্ট ॥ ৫২ " শর্করাযোনি প্রসঙ্গে মধুর গুণ কথিত হইতেছে-মধু চক্ষুদ্র হিতকারক, ছেদি ( যে দ্রব্য নিজের তীক্তাহেতু শরীরস্থ পিণ্ডতভাব সমূহকে ছেদন করে তাহাকে ছেদি কহে), রন্ধু কষায়মধুর রস, বায়ুবৰ্দ্ধক এবং তৃষ্ণা, শ্লেষ্মা, বিষাদোষ, হিকা, রক্তপিত্ত, মেহ, কুষ্ঠ, ক্রিমি, বমি, শ্বাস, ‘কাস ও অতিসার রোগের নাশক।” ইহা ব্ৰণের সংশোধক, সংযোজক ও রোপক। মধুজাত শকুঁৱাঁ। भक्षूं wytx \sgrifrifiè a croes * মধু উষ্ণ কান্বিয়া পান করিলে বা স্বয়ং উষ্ণাৰ্ত্ত হইয়া মধু পান করিলে কিংবা উষ্ণদেশে, উষ্ণকালে অথবা উষ্ণ দ্রব্যের সহিত মধু সেবন করিলে প্ৰাণ নষ্ট হয় ৷ ৫৫ ৷৷ বমন ও নিরূহণ কৰ্য্যে উষ্ণ মধু নিষিদ্ধ নহে। কারণ উহা (উষ্ণমধু) পরিপাক হইবার পূৰ্বেই উদর হইতে বহির্গত হইয়া যায় ॥ ৫৬ a তৈলবর্গ। সমস্ত তৈলই স্বীকারণ-সমগুণ-বিশিষ্ট অর্থাৎ যে তৈল যে দ্রব্য হইতে উৎপন্ন হয়, তাহাতে তত্তস্ত্রব্যের গুণবিদ্যমান থাকে। তৈলের মধ্যে তিল তৈল প্ৰধান গা , ইহা তীক্ষ, ব্যবায়ি (ব্যাপ্তিশীল), ত্বকের দোষজনক, চক্ষুর অহিতকর, সুন্নস্রোতোগামি, উষ্ণবীৰ্য্য, কাফাজনক, কৃশব্যক্তির পুষ্টিকারক, ফুলব্যক্তির কর্শক, মলের কাঠ্যক্তসম্পাদক ও ক্রিমিয়। তিল তৈল সংস্কাব বিশেষে (অর্থাৎ বিশেষ বিশেষ দ্রব্যের সহিত পাকাদি দ্বারা সংস্কৃত হইলে ) সৰ্ব্বদোষনাশক হইয়া থাকে ৷৷ ৫৭৷৷৫৮ O এরও তৈল-ঈষৎ তিক্তকটু ও মধুর রস, মলনিঃসারিক, গুরুপাক তীক্ষ, উষ্ণবীৰ্য্য, পিচ্ছিল, •নামগন্ধি, এবং ব্ৰঃ (কুঁচকী বা বাৰী), গুল্ম, বায়ু, কফ, উদাররোগ ও বিষমজারের” নাশক। ইহাত্মারা কটী গুহাদেশ কোষ্ঠ ও পৃষ্ঠ দেশস্থিত শোখ ও বেদিলা প্রশমিত হয়। 瞳