পাতা:আগামীকাল - শরৎচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়.pdf/৪২

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


এ-কথা আমি এক শ’বার স্বীকার করব । কল্যাণ-সঙ্ঘের সাথে আমায় এ-কাজ করতেই হয়েছে। তা ছাড়া একটি আগে তোমার মাখে। মণি'র যেসব গণের কথা শানেছি, জানা থাকলে ওকে কিছুতেই চাকরি দিতুম না তুমিও হয়ত ভালই জান। দেখােন এককড়িদা, বাইরে থেকে কল্যাণ-সঙ্ঘ আমাদের দশজনের সংস্থা বলে লোকে জািনলেও আসলে কথাটা ওকে শেষ করতে না দিয়েই এককড়ি বলে উঠিল, আসলে কল্যাণ-সপ্টেম্বর চবিত্বাধিকারী আমি নিজে, এই ত বলতে চাইছ ? আমায় যদি জিজ্ঞেস করেন তবে আমি এর সঙ্গে আর একটি বাড়িয়ে বলব । যেমন ? যেমন আপনি কল্যাণ-সঙ্ঘের একমাত্র সর্বত্বাধিকারী। আমি, মণি সবাই বেতনভূক্ত | দীঘলান হেসে একাকড়ি বললে, হ্যাঁ, অনেকটা সেরকমই বটে । অনেকটা বলে আসল প্রসঙ্গটাকে চাপা দেবার চেণ্টা করবেন না এককড়িদা । জলধি, আমি সেই থেকে লক্ষ্য করছি, তুমি বেশ কড়া কথা আমায় শোনাতে চােচ্ছ । বলবে বলবে করেও বলে উঠতে পারছি না। তুমি বলছি, আমি নাকি আসল প্রসঙ্গটা চাপা দেবার চোেটা করছি ! কিন্তু তোমার আসল প্রসঙ্গটা কি তাই তা আমার এখনও মাথায় ঢািকছে না। যে বঝেও না বঝার ভান করে ওকে বঝাতে পারে এমন লোক পথিবীতে কেন্টু ই নেই। ঠিক আছে, তবে বলেই ফেলি, আপনি কল্যাণ-সঙ্ঘের প্রতিদ্ঠাতা, পািঠপোষকএককথায় সবে সব। কাউকে চাকরি দেয়ার মালিক যেমন আপনি, আবার তেমনি চাকরি খেতে গেলে আপনার মতামতই প্রাধান্য পাবে, মিথ্যে বলেছি ? ভাল কথা । তারপর ? কিন্তু মণি'র চাকরি খাওয়ার ব্যাপারে কার্যত কি করলেন। আপনি ? কেন ? মােণ আমাদের সংস্থার সন্নামের প্রতিবন্ধক হতে পারে মনে করে ওকে চাকরি থেকে বরখাস্ত করেছি। এ-ব্যাপারে তুমিও তে আপত্তি করনি জলধি । না, আমি আপনার মতামতের বিরাদ্ধাচারণ করি নি । তবে এখন আপত্তিটা কোথায় ? আপত্তি এক জায়গাতেই। আপনি বাড়ি-বয়ে মণি’কে চাকরি থেকে বরখাস্ত করার কথা জানিয়ে এলেন। কিন্তু ওর চাকরি যাওয়ার জন্য আমায় পরোপরি দায়ী করলেন । এককড়ি চোখের তারায় বিস্ময়ের ছাপ একে বলে উঠল, তার মানে ? মানেটা বঝতে খাবই অসবিধে হচ্ছে বঝি। মণিকে কি বলে এসেছেন। এরই মধ্যে ভুলে গেলেন ? এছাড়া আর কি বলেছি, বৰঝতে পারছিনে ত যার জন্য তুমি রাগে এমন গজগজ SO