পাতা:আজ কাল পরশুর গল্প.pdf/১৪৪

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ऊाँ उ i | ° চেয়ে প্ৰায় সবিনয় নিবেদনের সুরে বলে, “কে ভেবেছিল। আমরা একদিন মোটর হাকাব ? সুশীলা বিবেচনা করে জবাব দেয়। সে মধ্যবিত্ত ভালোঘরের মেয়ে, পরীক্ষায় ভালো পাশ-করা গরীবের ছেলের সঙ্গে বিয়ে হল । ওমা, এত ভালো ছেলের চাকরী কিনা একশ' টাকার! কত অবজ্ঞা, অপমান, লাঞ্ছনা, গঞ্জনা স্বামীকে দিয়েছে সুশীলার মনে পড়ে। চালাকও হয়েছে সে আজকাল একটু। ভেবে চিন্তে তাই সে বলে, *আমি জান্তাম।” মাখনের মনে পড়ে সুশীলার আগের ব্যবহার। একটু খাপছাড়া সুরে সে জিজ্ঞাসা করে, “জান্তে ?” জান্তিম বৈকি ! বড় হবার, টাকা রোজগার করবার ক্ষমতা তোমার ছিল আমি জান্তাম। তাই না। অত খোচাতাম তোমাকে । টের পেয়েছিলাম, নিজেকে তুমি জানো না। তাই খুচিয়ে খুচিয়ে তোমায় মরিয়া করে জিদ জাগালাম-” ‘সত্যি ! তোমার জন্যে ছাড়া এত টাকা-ড্রাইভার, আস্তে 5ांवोंG ।' সুশীলা তখন বলে, “কিন্তু যাই বলো, দাস সাহেব না থাকলে তোমার কিছুই হত না।” মাখন হাসে, বলে, “তা ঠিক, কিন্তু আমি না থাকলেও আর দাস সাহেব ফাঁপতো না। কি ঘুষটাই দিয়েছি। শালাকে ৷” “কত কনট্রাক্ট দিয়েছে তোমাকে ৷” “এমনি দিয়েছে ? অত ঘুষ কে দিত ? S8