পাতা:আজ কাল পরশুর গল্প.pdf/৪৬

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


*t留可可* 可 9可?f爾 সে শুধু জিভে একটু স্বাদ দিয়ে পেট একটু শান্ত করে এদের লোভ বাড়িয়ে দিতে চায়, পাগল করে দিতে চায়। শৈলর জন্য সে একখানি শাড়ীও এনেছে। কাপড়খানা পরে তার সামনে এসেছে শৈলর মা । শৈলর সেমিজটি প্ৰায় আস্ত আছে, ছেড়া কাপড় পরলেও তার লজ্জা ঢাকা থাকে । কালাচাঁদ নানা কথা বলে । আসল কথাও পাড়ে একসময় । শৈলিকে নিয়ে যাবে ? চিকিচ্ছে করাবে ? “আজ্ঞে, হঁ্যা।” ‘বিড় কষ্ট হয় মেয়েটার কষ্ট দেখে ।” কালাচাঁদের নারীমেধ আশ্রমিক ব্যবসা সম্পর্কে কাণাঘুষ কেশবের কাণেও এসেছিল। সে চাপা আৰ্ত্ত কণ্ঠে বলে, “তোমার বাড়ীতে রাখবে ? শৈলিকে বাড়ীতে রাখবে তোমার ? “বাড়ীতে নয় তো কোথা রাখবোণীচকোক্তি মশায় ? : কেশব রাজী হয়ে বলে, “একটু ভেবে দেখি । ভগবান তোমার মঙ্গল করুন, বাবা, একটু ভেবে দেখি।” কালাচাদ খুন্সী হয়ে বলে, ‘বুধবার আসব। একটু বেশী রাতেই আসব, গাড়ীতে সব নিয়ে আসব। কার মনে কি আছে বলা তো যায় না চকোক্তি মশায়, আপনি বরং বলবেন যে, শৈল মামাবাড়ী গেছে।” কেশব চোখ বুজে বলে, “কেউ জানতে চাইবে না। বাবা । কারো অতি জানবার গরজ আর নেই। যদি বা জানে শৈলি নেই, ধরে নেবে মরে গেছে।” শৈলকে দেখা যাচ্ছিল। এত রোগা যে একটু কুজো হয়ে গিয়েছে। মনের গহন অন্ধকারে শৈশবের ভয় নড়াচড়া করে ওঠায় R