পাতা:আত্মকথা - সত্যেন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/২১

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


মার কাছে আমরা বেশীক্ষ৭ থাকতুম না-আমাদের আসল আডড ছিল মেজ কাকিমার ঘর ; সেই আমাদের শিক্ষালয়, সেই বিশ্রাম-স্থান । বলতে গেলে মেজ কাকিমাই আমাদের মাতৃস্থানীয়া ছিলেন ; স্টার কাছে আমরা গল্প শুনতুম, তার সঙ্গে তাস খেলতুম, তার কাছ থেকে বেছে বেছে নিয়ে বই পড়তুম-হাতেমতাই, লয়লা-মজনু, নবনারী, আরব্য উপন্যাস, লাম্বস টেল, পল ভাজ্জিনিয়ার অনুবাদ, এই রকম কতকগুলি বই আমাদের পুজি ছিল । আমাদের অন্তঃপুরে মহিলাদের মধ্যে সেকালে উচ্চ শিক্ষার প্রচার ছিল না, তবুও কাকিম প্ৰভৃতি বাড়ীর মেয়ের কেহ কেহ বাঙ্গালা বেশ জানতেন, তারাই আমাদের একপ্ৰকার শিক্ষয়িত্রী ছিলেন । কিন্তু অন্য সময় যাই হোক ব্যামোৰ সময় আমরা মার কাছেই থাকতুম । তখন আমাদের মাঝে মাঝে বাধা নিয়মে তিনদিনব্যাপী একরকম জর তৃ’ত তা ম্যালেরিয়া বলতে পারি না, কেননা তখন ম্যালেরিয়া ছিল না । জর হ’লেই ডাক্তার দ্বারি গুপ্ত আমাদের দেখতে আসতেন, কে জানে তঁাকে দেখলেই প্ৰাণ উড়ে যেত । ŠIS KIJK’ fez-se fra CNISF ( Castor Oi » S CIECM3 c5c3s friff “জলের সাগু ; দ্বিতীয় দিন এলাচদানার মত সামান্য কিছু পথ্য ; তৃতীয় দিন ফুলকো কুটি ; চতুর্থ দিন ভাত-সেই জ্বরের এই ক্রম ছিল। তখনকার কালে ব্যামোর সময় হাওয়া বদলের জন্যে বরাহনগর প্রভৃতি কাছাকাছি গঙ্গার ধারের জায়গা ও হুগলী বৰ্দ্ধমান প্রভৃতি দুরের কোন কোন স্থান স্বাস্থ্যকর বলে গণ্য হ’ত । এইক্ষণে সেই সকল স্থান ম্যালেরিয়ার আবাসভূমি বলে পরিত্যজ্য । তেমনি আবার কলিকতা এখন জলের কলে, নালানির্দমার সংস্কারে ও আর আর মুনিসিপাল বন্দোবস্তে পূর্বাপেক্ষ। অনেক স্বাস্থ্যকর হয়েছে সন্দেহ নাই ; এমন কি, কলকাতাই এক্ষণে পল্পীবাসীদের বায-পরিবর্তনের ও স্বাস্থ্য-অর্জনের প্রধান স্থান বল্পেও অত্যুক্তি হয় না। মৃত্যুর তালিকা পরীক্ষায় কলিকাতা ইউরোপেরও প্রধান প্রধান নগরীর সমকক্ষ দেখা যায়। অনেক ইংরাজে বলেন দুই একমাস ছাড়িয়া দিলে স্বাস্থ্যের হিসাবে কলিকাতার সমতুল্য স্থান ভারতবর্ষে মেলা দুষ্কর। নগেন্দ্রনাথ ঠাকুর ও ছোটকাকা । ছোটকাকার কাছে আমরা অনেক সময় যেতুম। তিনি গৌরবর্ণ তেজীয়ান সুশ্ৰী পুরুষ ছিলেন। কিন্তু কড়া মেজাজের লোক বলে মনে হ’ত, আমরা তঁকে ভয় করে চলতুম। তঁর বৈঠকখানায় নানা রকম লোভনীয় জিনিস ছড়ান থাকত। একবার St