পাতা:আত্মকথা - সত্যেন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/২৯৮

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


আনিলেন। তঁহার ইচ্ছা ছিল যে আমাকে ডেভিড হেয়ারের স্কুলে ভর্তিত করিয়া দিয়া ইংরাজী শিখাইবেন ; কারণ, তিনি দেখিয়াছিলেন যে, তিনি সংস্কৃত শিক্ষাতে । এত বৎসর দিয়াও এবং কলেজ হইতে সুখ্যাতির সহিত উৰ্ত্তীর্ণ হইয়াও ২৫ টাকার অধিক বেতন পাইলেন না। সুতরাং বুঝিয়াছিলেন যে, ইংরাজীর গন্ধ না হইলে কাজ কৰ্ম পাইবার সুবিধা নাই। কিন্তু তঁহার অবস্থাতে তাহা করিতে দিল না । তিনি তখন বর্ধমান জেলায় আমদপুরে পণ্ডিতি করিয়া আসিয়া কলিকাতা বাংলা পাঠশালাতে ২৫ টাকা মাসিক বেতনে কর্ম করিতেন । অতএব পুত্রকে উৎকৃষ্টরূপে ইংরাজী শিখাইবার যে বাসনা ছিল তাহা তাহকে পরিত্যাগ করিতে হইল । কেবল তাঁহাই নাহে । হেয়ার স্কুলে না দিবার আরও একটি কারণ উপস্থিত হইল। ঈশ্বরচন্দ্ৰ বিদ্যাসাগর মহাশয় তখন সংস্কৃত কলেজের অধ্যক্ষ । ঐ কলেজে আমার মাতুল দ্বারকানাথ বিদ্যাভূষণ মহাশয় অধ্যাপকতা করিতেন। বিদ্যাসাগর মহাশয় আমার মাতুলের সহাধ্যায়ী বন্ধু ছিলেন। তিনি সপ্তাহের মধ্যে তিন-চারিদিন আমাদের বাসাতে আসিতেন, এবং আমাকে নিকটে পাইলেই দুইটা অংঙ্গুল চিমটার মতো করিয়া আমার পেট টিপিতেন ; সুতরাং বিদ্যাসাগর আসিয়াছেন শুনিলেই আমি সেখান হইতে পলাইতাম । যাহা হউক, তখন বিদ্যাসাগর মহাশয় সংস্কৃত কলেজে ইংরাজী শিক্ষা প্রবর্তিত করিয়াছিলেন, তিনি আমার বাবাকে আমাকে হেয়াব স্কুলে না দিয়া সংস্কৃত কলেজেই দিতে বলিলেন , তদনুসারে আমাকে সংস্কৃত কলেজে ভর্তিত করা হইল । আমার মাতামহ হরচন্দ্ৰ ন্যায়রত্ন মহাশয় সেই সময়ে পীড়িত হইয়া স্বীয় গ্রামের বাড়িতে বাস করিতেছিলেন । আমি কলিকাতায় আসিয়া চাপাতলা সিদ্ধেশ্বর চন্দ্রের লেনের নিকটস্থ “মহাপ্রভুর বাড়ি' নামক এক বাড়িতে মাতুলের বাসাতে রহিলাম। ঐ বাড়ির বাহিরে নিচের তলাতে চৈতন্য ও নিত্যানন্দ দুইজনের কাষ্ঠনির্মিত দুই প্রকাও মূর্তি ছিল। হরেকৃষ্ণ বাবাজী নামক এক বাবাজী ঐ বাড়ির মালিক এবং ঐ উভয় মূর্তির সেবক ছিলেন । সেই বাড়ির এক ঘরে একটি চিত্রকর থাকিতেন, তিনি বাবুদের ছবি আঁকিতেন। তঁহার ঘরে অনেক সুন্দর সুন্দর ছবি ছিল। আমি স্কুল হইতে আসিয়া তাহার ঘরে অনেকক্ষণ থাকি,তাম, নিমগ্নচিত্তে ছবিগুলি দেখিতাম । আমার ছবি দেখার নেশা সেই অবধি অদ্য পৰ্যন্ত যায় নাই। আমাকে উৎকৃষ্ট উৎকৃষ্ট ছবির মধ্যে রাখিয়া দিলে বোধ হয় আহার নিদ্রা ভুলিয়া ঘণ্টার পর ঘণ্টা থাকিতে পারি। আমরা বাড়ির ভিতর উপরতলায় থাকিতাম। সেই উপরিতলায় এক পাশ্বের্ণ আমার মাতুল গ্রামের আর কয়েকটি ভদ্রলোক থাকিতেন। তাহারা আমাকে বড় 8 to