পাতা:আত্মচরিত (সিগনেট প্রেস) - শিবনাথ শাস্ত্রী.pdf/১৭

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


বলিতেন, “এ কথা কারকে বল না, টাকার কষ্ট হলেই আমার কাছে এস।” এখন :

  • আমার মাঙ্গাফ ঠাকুরাণী বড় ধর্মভীর মানষ ছিলেন। উপহাসন্ধালেও যদি BBDB DB DB DD BB DD BB DDB DDBDS DBD DBBB DBLD না দিয়া প্রসন্ন্যমনে থাকিতে পারিতেন না, তাহা দিতেই হইত। দই একটি দলেটালত । দিতেছি। একবার রন্ধনশালার জন্য একটি বড় ঘটি কেনা হইল। ঘাঁটিটি এত বড় যে জলশােন্ধ নাড়াচাড়া করিতে মেয়েদের কািন্ট হয়। মাতামহী একবার জলসমেত ঘটিটি DDDDB DDD DDD DBDBSBDD BBS DD BB DD DB DD BDBB BBB বারে খেতে পারে, তবে তাকে এক টাকা দিই।” আমনি জ্ঞাতিবগের মধ্যে এক । BDLaDB BBDD BB BDDDD DDD DDD DDBD BB DDuuBD uBDD DBS মাতামহী ভয় পাইয়া তাহার হাত ধরিয়া বলিতে লাগিলেন, “ওরে, তুই অত জল BDBBBDDS DBDDD DDD DD DDDS DDBBS g BD BD DD DD BBB DLBD DBBD S DBD sBBD sBD BBB DBBBDB D DD DDS সমান হইয়াছে। এমন সময় মাতামহীঠাকুরাণীর একবার গোলাতে যাওয়ার আবশ্যক হইল। উঠানে পা দিয়াই বলিয়া উঠিলেন, “বাবা রে! যেন আগন, এ উঠানে যদি কেউ দদন্ড বসতে পারে, তবে তাকে দটাকা দিই।” আমনি একজন যােবক প্রস্তুত । সে লাফ দিয়া সেই তপত উঠানের মধ্যে গিয়া বসিল। মাতামহী একেবারে অস্থির BBD DDuuBDSCsB BBB uuk DBDS DDD DDD DBSS DDDD DBBBB BBB টাকা দিলেন।

বাসতবিক তাঁহার মতো কোমলহদয়া, দয়াশীলা, প্ৰবজনবৎসলা, উদারপ্রকৃতি, সত্যপরায়ণা নারী অল্পই দেখিয়াছি। আমার বড়মামা দ্বারকানাথ বিদ্যাভূষণ মহাশয় ধর্মভীরতার জন্য প্রসিদ্ধ ছিলেন। সে ধর্মভীরতা তিনি জননী হইতে পাইয়াছিলেন। মাতামহীর বন্ধাবস্থায় আমার দই মামী যখন ঘরকল্পনার ভার লাইলেন ও তাঁহাকে সংসারের খাঁটিনাটি হইতে নিম্প্রকৃতি দিলেন, তখন ধমীচিন্তা, দরিদ্রের সেবা ও গহস্থ শিশগণের পালন তাঁহার প্রধান কাজ দাঁড়াইল। তিনি প্রতিদিন প্রাতে প্রায় অধ ক্লোশ পথ হাঁটিয়া গঙ্গাস্নান করিতে যাইতেন, এবং সনানান্তে ফিরিবার সময় পথের দই পাশে বা পরিচিত দরিদ্র পরিবারদিগকে দেখিয়া আসিতেন। এটি তাঁহার নিত্য ব্ৰতের মধ্যে হইয়াছিল। এজন্য তিনি নিজ ব্যয়ের টাকা হইতে কয়েক আনা পয়সা সঙ্গে লইতেন, এবং গহে ফিরিবার সময় বাড়িতে বাড়িতে প্ৰবেশ করিয়া আবশ্যকমতো কিছ কিছল সাহায্য করিতেন, এবং নিজের সাধ্যে না কুলাইলে, পত্রদিগকে অনরোধ করিয়া সাহায্য করাইয়া দিতেন। তাঁহার সহদেয়তার দন্টান্তস্বরূপ একটি কথা স্মরণ হইতেছে। একবার আমি পদব্ৰজে সম্ববীয় বাসগ্রাম হইতে কলিকাতায় আসিতেছিলাম। পথিমধ্যে মাতুলালয়ে একবেলা থাকিয়া আসিব এইরহপ সঙ্কল্প ছিল, কিন্তু অগ্নে তথায় সংবাদ দিই নাই। গ্রাম হইতে অতি প্ৰত্যুষে বাহির হইয়াছিলাম, মাতুলালয়ে পৌছিতে প্ৰায় বিপ্রহর হইয়া যাইবে। পথিমধ্যে একজন হীনজাতীয় লোক আমার সঙ্গ লইল । সে ব্যক্তি সব প্রথম কলিকাতায় আসিতেছে। সে যখন শানিল যে আমি শহরে আসিতেছি। তখন ব্যগ্রতা সহকারে তাহাকে সঙ্গে লইতে অনরোধ করিতে লাগিল। আমি জানিতাম, বিনা সংবাদে অসময়ে মাতুলালয়ে পৌছিব, হয়তো মামীদিগকে আবার SA