পাতা:আত্মচরিত (সিগনেট প্রেস) - শিবনাথ শাস্ত্রী.pdf/২০৮

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


একটা ধরিলেন। পরে জানিলাম, খালের পাশবাসপেথ কোনো গলেমর শাখা ধরিয়াছেন। খালের অপর পাশেবা কিয়ন্দরে একখানা শালতি দাঁড়াইয়া ছিল, আমি তখন উচ্চস্বরে uBuuB DBDBDD BDBDBBD DBD DBDBDDBBD DB DBS DBDD সামলাইতে অনেকক্ষণ গেল। তৎপরে আমরা দইজনে চলিতে লাগিলাম। বেলা অবসান হইয়া আসিতে লাগিল, তৃষ্ণায় দইজনের ছাতি ফাটিয়া যাইতেছে, কাদা-জল পান করিতে পারি না। কি করি, কি করি, ভাবিতে-ভাবিতে দেখিতে পাইলাম, কিয়ন্দরে একটা উচ্চ ভূমির উপরে একটা বাঙলা ঘর দাঁড়াইয়া আছে। মনে ভাবিলাম, সেখানে নিশ্চয়ই মানষ আছে, তাহারা জল দিতে পরিবে। উঠিয়া দেখি, সেটা গবৰ্ণমেণ্টের ইনস্পেকশন বাঙলা, সেখানে একজন আসামী চাকর আছে। তাহার একটি পানীয় জলের কলস দেখিলাম, তাহার মাখে একটি বাটি চাপা। তাহার নিকট জল চাহিলাম। তাহার পর যে কথাবাতা হইল, তাহা এই। ভৃত্য। কিসে করে খাবে ? উত্তর। কেন ? তোমার ঐ বাটিতে করে দাও । ভৃত্য। তা হবে না, তোমাদিগকে বাটি ছতে দেব না। তোমরা ‘কলা বঙ্গাল', আমাদের জলপাত্রে তোমাদের ছাতে দি না। উত্তর। আচ্ছা, আমরা হাতে অঞ্জলি করে হােত পাতছি, তাতে জল ঢেলে দাও । ভূত্য । হাতে ও বাটিতে যদি ঠেকাঠেকি হয়ে যায় ? ইতিমধ্যে দাবারিবাব গাছের পাতা ছিাড়িয়া আনিতে গেলেন। বলিয়া গেলেন, তাঁহার ফিরিতে কিছ বিলম্ব হইতে লাগিল। ইতিমধ্যে আমি সেই ব্যক্তির কাছে ব্রাহমাধ্যম প্রচার করিতে প্ৰবত্ত হইলাম। বলিলাম, “তোমার কি লঙ্কজা হচ্ছে না ? যে ঈশবর তোমাকে সম্মিট করেছেন, তিনি আমাদিগকেও সন্টি করেছেন। বলতে গেলে তুমি আমাদের ভাই। আজ এই বিপদের দিন, জলাভাবে প্ৰাণ যায়, তোমার জল আছে অথচ তুমি দিতে পারছি না। ভগবান যে জল সকলের জন্য দিয়াছেন, তাই একটা তুমি আমাদের জন্য দিতে পারলে না, কি লজার কথা!” কেন জানি না, আমার কথা শেষ হইলে সে ব্যক্তি ধীরভাবে বলিল, “আচ্ছা, আমার বাটিতে জল খাও।” তখন আমি দীবারিবাবকে চীৎকার করিয়া ডাকিলাম, “আসন, আসন! আমি একে ব্ৰাহম করেছি, বাটিতে জল দিতে রাজি হয়েছে।” দজনে কত হাসিলাম, তাহার বাটিতে পেট ভরিয়া জল পান করিলাম। আবার পদব্রজে জল ভাঙিয়া অগ্রসর হইলাম। সন্ধ্যাকালে সন্টীমারঘাটের সেন্টশনে উপস্থিত। সেখানকার বাবরা আশ্চর্যান্বিত হইয়া জিজ্ঞাসা করিলেন, “কি আশচয! এই জলপালাবনে আপনারা এলেন কিরাপে ?” আমি হাসিয়া বলিলাম, “হস্তী দশন, গাড়ি কষণ, নৌকা সাপশন, ও শেষে সন্তরণ।” ইহার অর্থ যখন ব্যাখ্যা করিলাম, তখন একটা হাসােহাসি পড়িয়া গেল। তৎপরদিন আমরা উভয়ে গাহাভিমখে প্রতিনিবত্ত হইলাম। পিতা-পত্রে মিলন। ১৮৮৮ সালের একটি বিশেষ সমরণীয় ঘটনা, কাশীতে আমার পিতাঠাকুরমহাশয়ের গরতের পীড়া। আমি উপবীত পরিত্যাগ করার দিন হইতে পিতাঠাকুরমহাশয় আমাকে এক প্রকার পরিত্যাগ করিয়াছিলেন। তদবধি এই দীঘ ROS