পাতা:আত্মচরিত (সিগনেট প্রেস) - শিবনাথ শাস্ত্রী.pdf/২৩৫

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ürfkker Pf3COgt u Swift ইংলন্ডের নারীসমাজ ইংলেণ্ডেড নারী জাতির উন্নত অবস্থা। ইংলন্ডে গিয়া যাহা প্রধান রাপে আমার চক্ষে পড়িল এবং যাহা দেখিয়া আমি বিস্মিত হইয়া গেলাম, তাহা নারীজাতির উন্নত অবস্থা। আমি প্রায় প্রতিদিন দেখা হইলেই দৰগামোহনবাবকে বলিতাম, “দগামোহন বাব এ তো মেয়েরাজার দেশ, মেয়েদের গণেই এ দেশ এত বড়।” তিনি বলিতেন, “তাই তো! এখন বঝিতেছি, কেন নেপোলিয়ন বলিয়াছিলেন, ইংলন্ডের মেয়েদের মতন মেয়ে দাও, আমি ফ্রান্সকে সামাজিক ভাবে বড় করিয়া তুলিতেছি।” বস্তুত ইংলন্ডে গিয়া আমার এই দঢ় প্রতীতি জন্মিয়াছে যে, ইংলন্ডের মহত্ত্বের পিশাচাতে ইংলন্ডের নারীগণ । আমি ধনী-রমণীগণের সহিত মিশিবার অবসর পাইতাম না, সতরাং তাঁহাদের সবভাব চরিত্রের কথা কিছল বলিতে পারি না; মধ্যবিত্ত শ্রেণীর মেয়েদের সঙ্গে মিশিতাম, সতরাং তাঁহাদের বিষয়ই জানি। এ দেশের লোক অবরোধ প্রথার মধ্যেই বধিত, সতরাং তাঁহাদের মনে এই সংস্কার বদ্ধমলে যে নারীগণ সবাধীন ভাবে সবােত্র গতায়াত করিলে তাহারা আপনাদের চরিত্রের পবিত্ৰতা রক্ষা করিতে পারিবে: না। এ যে কি ভ্ৰান্ত ধারণা, তাহা একবার ইংলন্ডের মধ্যবিত্ত শ্রেণীর নারীগণের সহিত মিশিলেই বঝিতে পারা যায়। আমি যখন সেখানে গিয়াছিলাম, তখন নারীকুলের মধ্যে শিক্ষা বিস্তার করিবার জন্য, নারীকুলের রাজনৈতিক অধিকার স্থাপনের জন্য, নারীকুলের সব বিধ উন্নতি বিধানের জন্য, নানা চেন্টা চলিতেছিল। তাহার ফলস্বরপ নারীগণের মধ্যে এক নািতন ভাব ও উন্নতি সপোেহা দেখা দিয়াছিল। সকল ভালো কাজে, সকল উন্নতির চৰ্চাতে, সকল আলোচনাতে, সকল সদানন্ঠানে নারীদিগকে দেখিতাম। কোনো সদানন্ঠানের সভাতে গিয়া দেখি, অধোঁকের অধিক নারী; কোনো প্ৰসিদ্ধ ধমৰ্যাচাযের উপদেশ শনিতে গিয়া দেখি, নারীদের ভিড় ঠেলিয়া প্রবেশ করিতে হয়; কোনো বন্ধীর ভবনে কোনো সদালোচনার জন্য নিমন্ত্রিত হইয়া দেখি, অর্ধেকের অধিক নারী। নিম্পন্ন শ্রেণীর মধ্যবিত্ত পরিবারে নারীদিগের পড়ার অভ্যাস। দই-একটি বিষয় উল্লেখ করিলেই সেখানে নারীগণের কি অবস্থা দেখিয়াছিলাম, তাহা সকলে হদয়ঙ্গম করিতে পরিবেন। আমি যাঁহাদের ভবনে থাকিতাম তাঁহাদের বণনা অগ্ৰেই করিয়াছি। BBDDBBD DDD LLuB DBDDD BBBD DBDBBD LBB S BDDB DBDDSDBDBB পরদা সেলাই করিয়া বিক্রয় করিয়া খাইতেন। অথচ বন্ধ পিতাকে প্রতি সোমবার ROS