পাতা:আত্মচরিত (সিগনেট প্রেস) - শিবনাথ শাস্ত্রী.pdf/২৬৩

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ব্ৰয়োবিংশ পরিচ্ছেদ ৷ ১৮৯১-১৯o৮ সাধনাশ্রম। ১৮৯২ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে আমি সাধনাশ্রম প্রতিষ্ঠিত করি। ১৮৯১ সালে আমি শহরের ভিতর হইতে উঠিয়া গিয়া বালিগঞ্জে বাসা করিয়াছিলাম। উঠিয়া যাইবার কারণ এই। কিছদিন হইতে আমার মনে কি এক প্রকার অবসাদের ভাব আসিয়াছিল, আমার নিজের কাজকমের প্রতি ও সমাজের কাজকমের প্রতি কেমন এক প্রকার বিতৃষ্ণা জন্মিয়াছিল। কিছই ভালো লাগিতা না, মেজাজ খারাপ হইয়া যাইতেছিল। সামান্য কথাতে বন্ধ-বান্ধবের প্রতি, পরিবার-পরিজনের প্রতি বিরক্ত হাইতাম। অবশেষে মনে হইল, শহর হইতে একটা দরে থাকাই ভালো। তাই বালিগঞ্জে একটি বন্ধর একটি বাড়ি ভাড়া লইয়া গিয়া বাস করিলাম। এখানে প্রায় প্রতিদিন প্রাতে এক নিজন বাগানে গিয়া বসিয়া চিন্তা করিতাম। এইরূপ চিন্তা করিতে করিতে মনে হইতে লাগিল যে, যাঁহারা ব্ৰাহমাধ্যম সাধন, ব্রাহমাধ্যম প্রচার, ব্রাহামসমাজ ও জনসমাজের সেবার জন্য আত্মসমপণ করিবেন, এবং বিশবাসী বৈরাগ্য ও সেবার ভাবের দবারা অন্যপ্রাণিত হইয়া কায করিবেন, এরপ একটি ঘননিবিন্স্ট সাধকমন্ডলী গঠন করার বড় প্রয়োজন। তিদিভন্ন ব্রাহামসমাজের শান্তি জাগিবে না। বিশবাসী ও বৈরাগ্য ভাবাপন্ন মানষেই ধমৰ্মসমাজের বল। এরপ মানষে প্ৰস্তুত না হইলে ধমসমাজের শক্তি জাগে না। এই ধারণা মনকে এমন করিয়া ধরিয়া বসিল যে, দিনরান্ত্ৰি চিন্তাকে অধিকার করিতে লাগিল। অবশেষে ১৮৯২ সালের মাঘোৎসবের সময় মনে সঙ্কলপ জাগিল যে, এরপ একটি সাধকমন্ডলী প্ৰস্তুত করিতে হইবে। সেই বিষয়ে প্রার্থনা করিতে লাগিলাম। অবশেষে হািদয়ে সেইরূপ প্রেরণা আসিল। ঐ বৎসর আমার জন্মদিনের পাবে (অর্থাৎ ৩১শে জানায়ারির পাবে) সেই সঙ্কল্প কাযে। পরিণত করিবার জন্য প্রস্তুত হইলাম। প্রস্তাবিত আশ্রমের উদ্দেশ্য ও ভাব একখানি কাগজে লিখিয়া বন্ধবের আনন্দমোহন বসকে দেখাইলাম। তিনি হািদয়ের সহিত উৎসাহ দিলেন। তৎপরে ৩১শে জানায়ারি আমার জন্মদিন হইয়া গেল। ১লা ফেব্রুয়ারি ১৮১২, LBD BDDD BBBD DD uBDBD BDDDuDB BBD DB DDD DBBB DDDBB বন্ধকে নিমন্ত্ৰণ করিয়া উপাসনা পর্বক আশ্রম পন্থাপন করিলাম। সেই দিন যাঁহারা উপস্থিত ছিলেন, তন্মধ্যে ময়মনসিংহের শ্ৰীযন্ত গািরদাস চক্ৰবতী একজন। তিনি ঐ কাগজ পড়িয়া অতিশয় আন্দোলিত হইলেন, এবং BBBBD DBBB DBDD DBB DDDBD DBBB DBD DBD DD DBBDD DBBDDS সিংহ স্কুলের শিক্ষক ছিলেন। ছটি লইয়া কলিকাতায় আসিয়াছিলেন। সতরাং তাঁহাকে তখন বিদায় দেওয়া গেল। কিন্তু তিনি গিয়া বার-বার পত্র লিখিতে লাগিলেন। R&S