পাতা:আত্মচরিত (৩য় সংস্করণ) - শিবনাথ শাস্ত্রী.pdf/১২৭

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ડન્ફર-૭૧] উড়ো সাহেব ও চট জুতা ଶଳ সাহেব । রাজা রাধাকান্ত দেব অত্যন্ত ફિજી, ठूभि कि ऽहन्छ ? আমি। ই সাহেব, শুনেছি। , ཚེ་ সাহেব। আমার গাড়ি জােতা হচ্ছে, আমি এখনই তীকে দেখুক্ত যাব। তুমি আমার সঙ্গে যাবে ? আমি । না। সাহেব, আমাকে কলেজে যেতে হবে ; বেলা হ’য়ে যাচ্ছে । সাহেব । আচ্ছা, যদি তুমি আমার সঙ্গে যাও, তঁর ঘরে প্রবেশ করবার সময় জুতা খুলবে কি না ? আমি সেখানে জুতা খুলিবার কারণ বলিতে যাইতেছি, সাহেব বাধা দিয়া বলিলেন, “ ‘হঁ’ কি “ন’ বল ; আমি আর কিছু শুনতে ਝੇ ' ' আমি। হা সাহেব, সেখানে খুলবে। t সাহেব। তবে আমার এখানে খুলবে না কেন ? डांशि । उांश्रनि কারণ শুনবেন না, তবে আমি কি করব ? কারণটা শুনিলে বলিষ্ঠাম যে, বাঙ্গালী ভদ্র লোকের বৈঠকখানাতে জাজিম পাতা থাকে ; সকলেই জুতা খুলিয়া প্রবেশ করে ; সুতরাং আমাকেও সেই ভাবে প্ৰবেশ করিতে হইত। কিন্তু সাহেব যখন আমার কথাতে কান দিলেন না, তখন বাধ্য হইয়া মৌনাবলম্বন করিলাম, এবং তঁহাকে অভিবাদন করিয়া ঘরের বাহির হইলাম। সাহেব। আবার ডাকিলেন, “ছোকরা, শোন শোন।” আমি আবার ঘরে প্রবেশ করিলাম। সাহেব। তুমি একটা কথা শুনেছি, “নিজের মান যদি চাও অপরের মান আগে রাখা ?” আমি। সাহেব, ও খুব ভাল কথা ; আমি অনেক দিন শুনেছি। এই বলিয়া আবার তঁহাকে অভিবাদন করিয়া ত্বরিত পদে গৃহ হইতে বাহির হইয়া কলেজের দিকে ছুটিলাম।