পাতা:আত্মচরিত (৩য় সংস্করণ) - শিবনাথ শাস্ত্রী.pdf/১৯৬

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


Y98 শিবনাথ শাস্ত্রীর আত্মচারিত [ ৬ষ্ঠ পরিঃ পড়াইবার বন্দোবস্ত করিয়াছিলাম। তৎসম্বন্ধে একটি কৌতুককর গল্প মনে আছে । তাহা এই স্থানে বলিতে ইচ্ছা করিতেছে। যে মেম প্ৰসন্নময়ীকে পড়াইতেন তিনি সপ্তাহে দুই দিন আসিতেন। এক বার আসিয়া, মেম মানবের আদি পিতা মাতা আদম ও হবার ( Adam and Eve) বিবরণ মুখে মুখে প্ৰসন্নময়ীকে বলিয়া গেলেন। তার পর গৃহ কৰ্ম্মে ব্যাপৃত হইয়া প্ৰসন্নময়ী আদম-হবার কথা সমুদয় ভুলিয়া গেলেন। দ্বিতীয় দিনে আসিয়া মেম জিজ্ঞাসা করিলেন, “বীে, মানবের আদি পিতা মাতা কে ছিল ?” প্ৰসন্নময়ী ত অন্ধকার দেখিলেন, আদম ও হব। মনে আসিল না । তখন মেম তিরস্কার করিয়া বলিয়া গেলেন, “তোমার বাবুকে জিজ্ঞাসা করিতে পার না ?” মেম পুনরায় আসিবার দিন প্রাতে প্ৰসন্নময়ী আমাকে জিজ্ঞাসা করিলেন, “হঁ। গো, মানুষ আগে কি ক’রে হ’ল ?” আমি বলিলাম, “তা কে জানে ? তবে এক জন পণ্ডিত বলেছেন যে আগে মানুষ বানর ছিল, বানর। হ’তে মানুষ হয়েছে।” সেদিন মেম আসিয়া জিজ্ঞাসা করিলেন, “মানুষ কেমন ক’রে হ’ল ?” প্ৰসন্নময়ীর আবার আদম-হবা মনে নাই । মেম। তখন বিরক্ত হইয়া বলিলেন, “তোমার বাবুকে জিজ্ঞাসা কর না কেন ?” প্ৰসন্নময়ী ভয়ে ভয়ে বলিলেন, “তঁাকে জিজ্ঞাসা করেছিলাম ; তিনি বলেছেন, “বানর। হ’তে মানুষ হয়েছে’।” মেম বলিলেন, “তোমার বাবু বড় দুষ্ট, তোমাকে তামাসা করেছে।” প্রসন্নময়ী বালিলেন, “না, তামাসা করেন নি, সত্যি সত্যি বলেছেন।” সেদিন ঘটনাক্রমে আমি অন্য ঘরে ছিলাম, মেম। যাইবার সময় আমার নিকট আসিলেন। তখন ডারুইনের নূতন মত সম্বন্ধে সমুদয় কথা তাঁহাকে বলিলাম। তিনি প্রসন্নময়ীকে পরে বলিয়াছিলেন, “তোমার বাবুকে কিছু জিজ্ঞাসা ক’রো না।” শুনিয়া আমি অনেক হাসিয়াছিলাম। এইরূপ এক জন মিশনারী মেম গণেশ সুন্দরীকে পড়াইতেন। এক দিন