পাতা:আত্মচরিত (৩য় সংস্করণ) - শিবনাথ শাস্ত্রী.pdf/২৮৬

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


S88 শিবনাথ শাস্ত্রীর আত্মচরিত ১১শ পরিঃ বসা গেল।।*।। কেশব বাবুকে কিছু বলা উচিত কি না, যদি বলা হয়, কি বলা হইবে, কে কে তাহাতে স্বাক্ষর করিবেন, এই বিচারে রাত্ৰি প্রায় দুইটা বাজিয়া গেল। স্থির হইল, একখানি প্ৰতিবাদ পত্রে কয়েক ব্যক্তি স্বাক্ষর করিয়া কেশব বাবুর হাতে দেওয়া হইবে। কিন্তু সেই গভীর রাত্রে বন্ধুদ্বয় দুৰ্গামোহন দাস ও দ্বারকানাথ গাঙ্গুলী বলিলেন, “এই প্রতিবাদ পত্র প্রেরণের তুমনিবাৰ্য্য ফল, কেশব বাবু তাহার সমুচিত ব্যবহার না করিলে স্বতন্ত্র সমাজ প্ৰতিষ্ঠা করা । তাহা করিতে তোমরা প্ৰস্তুত আছ কি না ?” আনন্দমোহন বাবু ও আমি বলিলাম, “স্বতন্ত্র সমাজ প্রতিষ্ঠা এখনও আমাদের মনে নাই ; সে বিষয়ে কথা দিতে পারি না। " যেটুকু আপাততঃ কৰ্ত্তব্য বোধ হইতেছে, তাহাই করিতে যাইতেছি। ফলাফল জানি না।” দুৰ্গামোহন বাবু বলিলেন, “ছেলে খেলার মধ্যে আমরা নাই। র্যারা আমাদের সঙ্গে সমগ্ৰ পথ যাইতে প্ৰস্তুত নন, তঁদের সঙ্গে স্বাক্ষর করিব না।” এই বলিয়া তিনি ও দ্বারি বাবু চলিয়া গেলেন। হঁহারা দুই জনে চলিয়া গেলে প্ৰতিবাদ পত্রে উল্লেখ্য বিষয়গুলি স্থির হইয়া গেল। পর দিন হইতে তাহাতে বিশিষ্ট ব্ৰাহ্মদিগের স্বাক্ষর লওয়া হইতে লাগিল। সকলের ভক্তিভাজন শিবচন্দ্ৰ দেব 'মহাশয় স্বাক্ষরকারীদের অগ্ৰণী হইলেন। কি জানি কি ভাবিয়া দুৰ্গামোহন বাবু ও দ্বারি বাবু দুই দিন পরে উক্ত পত্রে স্বাক্ষর করিলেন। এদিকে ৯ই ফেব্রুয়ারী ১৮৭৮ দিবসের ইণ্ডিয়ান মিরার পত্রিকাতে কুচবিহার বিবাহ সুনিশ্চিত বলিয়া প্ৰকাশিত হইল। সেই দিবসই আমাদের নিযুক্ত তিন ব্যক্তি ২৬ জন বিশিষ্ট ব্রাহ্মের স্বাক্ষরিত ঐ পত্ৰ কেশব বাবুকে দিয়া আসিলেন। কেশব বাবুর প্রচারক কান্তিচন্দ্ৰ মিত্ৰ মহাশয় তাহা লইয়াছিলেন । *ğr

  • २२७ श्रृछैl cपथ ।

sko