পাতা:আত্মচরিত (৩য় সংস্করণ) - শিবনাথ শাস্ত্রী.pdf/৪০৮

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


\od tr শিবনাথ শাস্ত্রীর আত্মচারিত [ ১৭শ পরিঃ সেটি লুকাইলেন। শেষে বলিলেন, “আপনি কি তীরে যাইবেন ? সাবধান, • ভাল ইণ্টারপ্রেটার লইবেন, নতুবা লোকে ঠকাইবে।” এই বলিয়া যাইবার সময় এক জন চেনা ইণ্টারপ্রেটারকে ডাকিয়া আমার কাছে দিয়া গেলেন। ইংরাজদের ব্যবহারের সহিত কি প্ৰভেদ । সেই সমুদ্রযাত্রা বিষয়ে আর একটি স্মরণীয় ঘটনা আছে। জাহাজে আরোহীগণ আপনাদের বিনোদনের জন্য নানা প্ৰকার উপায় উদ্ভাবন করিয়া থাকে ; সাহেব ও মেমদিগের নাচ গান ও খেলা, সকলি চলিতে থাকে। আমরা “মির্জাপুর’ নামক জাহাজে যাইতেছিলাম। তাহার ফাষ্ট্য ক্লাসের আরোহীগণ এইরূপ নাচ গান খেলা আরম্ভ করিলেন। সেকেণ্ড ক্লাসে চীন দেশ হইতে কতকগুলি ইংরাজ মিশনারী কলম্বো বন্দরে আসিয়া আমাদের সঙ্গে জুটিয়াছিলেন। তঁহাদিগকে আমি বলিলাম, “আসুন, আমরা সপ্তাহে এক দিন করিয়া সেকেণ্ড ক্লাসে বিবিধ বিষয়ে বক্তৃতা আরম্ভ করি, ও প্রথম শ্রেণীর আরোহীদিগকে নিমন্ত্ৰণ করিয়া শুনাই।” ক্রমে আমাদের সাপ্তাহিক বক্তৃতা আরম্ভ হইল। তাহার এক বক্ততা আমাকে দিতে হইল। যদিও অনেকে আসিলেন না, যাহারা আসিলেন তাহারা সন্তোষ প্ৰকাশ করিলেন। এই উপলক্ষে নরওয়ে দেশের এক জন ভদ্রলোকের সহিত আমার পরিচয় ও বন্ধুতা হইয়া গেল। তিনি ফাষ্ট ক্লাস ত্যাগ করিয়া অনেক সময় দ্বিতীয় শ্রেণীতে আসিয়া আমার সহিত কথাবার্তা কহিতেন। লণ্ডনের বাসা - ১৯শে মে শনিবার আমরা লণ্ডনে উপস্থিত * হইলাম। দুই দিনের মধ্যেই আমি ব্ৰাহ্মসমাজের হিতৈষিণী মিস কলেটের সহিত সাক্ষাৎ করিলাম। তিনি তখন উত্তর লণ্ডনে হাইবরির সন্নিকটে এক বাড়ীতে একলা থাকিতেন। একটি চাকরানী তাহার পরিচর্য্যা করিত। তদ্ভিন্ন বোধ হয় একটি ভ্রাতুষ্পপুত্রীও তঁাহার সঙ্গে থাকিত। মিস কলেট বলিলেন, “তুমি এই উত্তর লণ্ডনে একটা থাকবার জায়গা