পাতা:আত্মচরিত (৩য় সংস্করণ) - শিবনাথ শাস্ত্রী.pdf/৪৫২

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


VSS শিবনাথ শাস্ত্রীর আত্মচারিত [ ১৮শ পরিঃ ভ্ৰাতার হস্তুে অৰ্পণ করিবে। সে আসিয়া দাড়াইলে আমি তাহার কাধে হাত দিয়া তাহার পশ্চাতে দাড়াইলাম। কিয়ৎক্ষণ পরেই সে চলিতে আরম্ভ করিল এবং সেই জিনিসটি তুলিয়া লইয়া চোখ-বাধা অবস্থাতেই নিজ কনিষ্ঠ ভ্রাতার দিকে চলিল। তখন পিতা মাতা ভাই বোন, সকলে মিলিয়া ছোট ছেলেটির হাতের পাশে হাত পাতিলেন। চোখ-বাধা মেয়েটি একে একে সকলের হাত ছুইয়া পরিত্যাগ করিয়া অবশেষে ছোট ভাইটির হাতেই জিনিসট দিল । তখন ষ্টেড আশ্চৰ্য্যান্বিত হইয়া বলিতে লাগিলেন, “তবে 'ত ইহার ভিতর কিছু আছে। এক মনের শক্তি দ্বারা যদি আর এক মনের ও শরীরের উপরে এরূপ কাজ করা যায়, তবে কেন পরলোকগত আত্মারা এ জগতের মানুষের উপর কাজ করবে না ?” আমি বলিলাম, “তাই তা বটে, আমিও ত তাই বলি।” ইহার পর আমি এদেশে চলিয়া আসিলাম। কিছু দিন পরে শুনি, ষ্টেড প্ৰেততত্ত্ব সম্বন্ধে অনেক কথা ব্যক্ত করিতেছেন। তঁহার প্রকাশিত পত্রিকা ও পুস্তকে তাহার অনেক প্ৰমাণ পাইতে লাগিলাম। কিন্তু আমি যে ঘটনার কথা বলিতেছি, সে সময়ে তঁহার সে প্রকার ভাব কিছুই দেখি নাই। তাহাতে অনুমান করি, অপরাপর ঘটনার মধ্যে এটিও তাহার চিত্তকে ঐ দিকে প্রেরণ করিয়া থাকিবে । অন্যান্য স্মরণীয় পুরুষ ও নারী -যে যে ব্যক্তির নাম বিশেষ রূপে উল্লেখ করিলাম, তদ্ব্যতীত আরও কয়েক জন অগ্রগণ্য পুরুষ ও নারীর সহিত সাক্ষাৎ হইয়াছিল। যথা, অধ্যাপক মনিয়ার উইলিয়ামস, অধ্যাপক জন এষ্টলিন কর্পেণ্টার, রেভারেণ্ড ষ্ট্রপফোর্ড ব্রুক, মিসেস ফসেট, মিসেস জোসেফাইন বাটলার । মিসেস বাটলার ও নারী শক্তি ।-ইহাদের মধ্যে মিসেস বাটলারকে দেখিয়া মনে যেন নব শক্তি পাইয়াছিলাম। তিনি তখন যে