প্রধান মেনু খুলুন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


পঞ্চম গর্তাঙ্ক । ] আদিশূত্র কীৰ্ত্তন । [ বিকট হস্তসহকারে } হাঃ-হাঃ হাঃ ! ভূল কয়লে রাজা ! মনে ক’লে বুঝি কি একটা উৎকট দণ্ডবিধানই করলাম! তুমি জান। না রাজা ! আমার প্রাণের মধ্যে যে আগুন জলছে, তার কাছে নরকচিতা স্নিগ্ধ, হলাহল আমারতাদায়ী, তোমার এ কুকুরের দংশন সহস্ৰগুণে শাস্তির। চল প্রহরী ! [উন্মত্তের ন্যায় প্রহরীসহ চলিয়া গেল । আদিশূর। কার সংস্কারক আদিশূর, ধৰ্ম্মের ? না পাপের ? ? বীরসিংহ ও সনাতনকে লইয়া সামন্তসেন প্ৰবেশ করিলেন । আদিশূর। সামন্তু ! এই যে মহারাজ ! বীরসিংহ। হঁয় রাজা । আদিশূর। এইবার তোমায় জিজ্ঞাসা করি রাজাবীরসিংহ। কিছু জিজ্ঞাসা ক’রো না। রাজা ! উত্তর দেবার আমার ভাষা নাই । শেষ কথা শোন, যা করেছ-করেছ ; এইবার দ্বিতীয়বার ঐ রাজা সম্বোধনের পূর্বে যেন আমার শির স্কন্ধচু্যত হ’য়ে তোমার সভাতলে লুষ্ঠিত হয়। তোমার বাক্য যেন শেল-তোমার নিশ্বাস মেন অগ্নিকুণ্ডতোমার মুখদর্শন নরক । আদিশূর। বৌদ্ধগুরু ! তোমারও কি অভিমত তাই ? সনাতন । তাই ; শিষ্যের সঙ্গে গুরুর প্রাণ এক সুত্রে গাথা । আদিশূর। উত্তম। তবে বুদ্ধকে স্মরণ করা, বক্ষ বিস্তার কর, আলিঙ্গন কর আমার তরবারি } { অস্ত্ৰ উন্মোচন করিলেন } } তক্ষশীল ব্যান্ত্রের মত বাপাইয়া মধ্যস্থলে অ্যাসিয়া পন্ডিলেন । ” তক্ষশীল ৭ থাম আদি ! আদিশূর। কেন গুরু ? [ भ७१ }