পাতা:আদিশূর ও বল্লালসেন.pdf/১৩

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


আদিশূর ও বল্লাল সেন । ماي* অধীশ্বর ছুইয়া পরমস্থখে কালাতিপাত করিতে লাগিলেন। কালক্রমে পঞ্চ ব্রাহ্মণের কাণুকুজস্থিত পূৰ্ব্ব দারোৎপন্ন সন্ততিগণ পিতৃ উদ্দেশে সমাতৃক বঙ্গদেশে আগমন করিলেন। কিন্তু তাহ+ দিগের সহিত সপত্ন্য ভ্রাতাদিগের নিরন্তর অসমাবেশ হইবে আশঙ্কায় আদিশূর তাহাদিগকে বরেন্দ্র ভূমিতে স্বতন্ত্র গ্রাম নির্দেশ করিয়া বঙ্গে স্থাপন করিলেন, এবং বৈমাত্র ভ্রাতাদিগের পরস্পর ঈর্ষা জনিত দ্বেষভাব হেতু দুই সম্পূর্ণ পৃথক সম্প্রদায়ে কাকুজাগত সমস্ত ব্রাহ্মণগণ বিভক্ত হইয়া গেলেন। আদিশূর বঙ্গে পরম পণ্ডিত পঞ্চ ব্রাহ্মণ স্থাপন করিয়া বঙ্গের ভাবী উন্নতি তরুর বীজ বপনরুপ অচলা কীর্তি রাখিয়া লোকান্তরিত হইলেন । তদীয় পুত্র যামিনীভানু ও তৎপুত্ৰ অনিরূদ্র ও ক্রমে প্রতাপরুদ্র ভূদত্ত প্রভৃতি কতিপয় নৃপতি বঙ্গরাজ্য শাসন করিয়া মানবলীলা সংবরণ করেন । তৎপর আদিশূর বংশীয় শেষ রাজা নিরপত্য হেতু স্বীয় দৌহিত্র বিজয়সেন নামান্তর ধীরসেন অথবা বীরসেনকে সিংহাসন প্রদান করেন | #

  • আইন আকবরি মতে আদিশূর-বংশীয় নৃপতিদিগের পশ্চাৎ ১০ জন পালবংশীয় নৃপতি গৌড় দেশ শাসন করিয়াছিলেন, তৎপর ধীরসেন ও বল্লালসেন প্রভৃতি বঙ্গরাজ্যের অধীশ্বর হয়েন । অম্বষ্ঠসস্বাদিক গ্রন্থেও আদিশূর বংশীয় ও বল্লাল বংশীয় নৃপতিদিগের মধ্যে বৈদ্য জাতীয় পাল নামধেয় ১০ জন নৃপতির উল্লেখ আছে। ফলতঃ পালবংশীয়ের বৈদ্যজাতীয় ছিলেন কিনা মীমাংসা হওয়া এক্ষণে সুকঠিন । পালবংশীয় কতিপয় নৃপতি সম্বন্ধে প্রস্তর ফলকে অঙ্কিত যে সকল শ্লোক পাওয়া গিয়াছে, তাহাতে র্তাহাদিগের জাতির কোন উল্লেখ নাই। উত্তর কালে আরও কোন চিন্তু আবিষ্কৃত হইলে ইহার মীমাংসা হইবেক । আমরা এজন্য আদিশূর-বংশীয় নৃপতির পরই সেনবংশীয়দিগের উল্লেখ করিলাম এবং পালবংশীয় নৃপতিদিগের নামোল্লেখ এস্থানে করিলাম না। • পরিশিষ্টে উক্ত বংশের তালিকা দেওয়া গেল ।