পাতা:আদিশূর ও বল্লালসেন.pdf/১৬

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


আদিশূর ও বল্লাল সেন । ծ মিত্রগণ তাহকে কোন মতেই নিবারণ করিতে পারিল না । সুতরাং বিনা যুদ্ধেই দিল্লীর সিংহাসন অধিকৃত হইল । তিনি দিল্লীর সিংহাসন বিজয় করিয়াছেন, এই সংবাদে অন্যান্য নৃপতিগণও যুদ্ধোদ্যমে বিরত হইলেন। ধীরসেন দিল্লীর সিংহাসন অধিকার হেতু বিজয়সেন নামে প্রসিদ্ধ হইলেন । বিজয়সেন তদীয় জ্যেষ্ঠ পুত্ৰ শুকসেনকে বঙ্গদেশের শাসনকার্য্যে নিয়োজিত করিয়া স্বয়ং দিল্লীতে অধিষ্ঠিত রহিলেন । শুকসেন তিন বৎসর বঙ্গদেশ শাসন করিয়৷ লোকান্তরিত হওয়ায় তদীয় কনিষ্ঠ ভ্রাতা বল্লালের হস্তে বঙ্গরাজ্য অপিত হয় । ইহার কতিপয় বৎসর পরে বিজয়সেন মানবলীল। সম্বরণ করেন । বল্লাল তদীয় পিতার মৃত্যু সংবাদ শ্রবণ করিয়৷ স্বীয়-তনয় লক্ষণসেনকে বঙ্গরাজ্য শাসনের ভার অপণান্তর স্বয়ং দিল্লীতে যাত্রা করিলেন । তথায় কতিপয় বৎসর অতিবাহিত করিয়। বঙ্গদেশে পুনরাগমন করিয়াছিলেন । কথিত আছে, বল্লাল দিল্লীতে অধিষ্ঠান সময়ে পদ্মিনী নাল্পী এক নীচজাতীয় পরম সুন্দরী যুবতীর প্রণয়পাশে আবদ্ধ হইয়াছিলেন। লক্ষণসেন এজন্য র্তাহাকে বারম্বার তিরস্কার করিয়া পত্র লিখেন । পত্রে যে সমুদয় শ্লোক লিখিত হইয়াছিল এবং তদুত্তরে বল্লাল ঘে লুমুদয় শ্লোক রচনা করেন, তাহ অদ্যপি বঙ্গদেশে প্রচারিত আছে । বল্লাল কতিপয় বৎসর বঙ্গরাজ্য স্বশাসন করিয়া চরম বয়সে রাজকাৰ্য্য হইতে একপ্রকার অবসর গ্রহণ পূর্বক ধৰ্ম্ম শাস্ত্র আলোচনায় প্রবৃত্ত হন এবং সংস্কৃত ভাষায় কতিপয় २.