পাতা:আদিশূর ও বল্লালসেন.pdf/৩৮

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


আদিশূর ও বল্লাল সেন । . . دریا যজুৰ্ব্বেদোক্ত অর্থ গ্রহণ করিলে, পঞ্চম শ্লোকের ক্ষু অন্যান্য চরণের ভাবেরও কোন পরিবর্তন হয় না। যথা— “ব্রহ্মক্ষত্ৰং” ব্ৰহ্মজ্ঞানং ক্ষত্ৰবীৰ্য্যঞ্চ ( ব্রহ্মজ্ঞান এবং ক্ষত্র বীৰ্য্য) ব্রহ্মক্ষত্রায় সাধু, ইত্যর্থে ইয়, “ ব্রহ্মক্ষত্ৰিয়ঃ ” (ব্রহ্মজ্ঞান এবং ক্ষত্ৰিয়তেজ সম্পন্ন ব্যক্তি ) তেষামৃ “ ব্রহ্মক্ষত্রিয়াণামৃ কুলশিরোদামঃ” অর্থাৎ ব্রহ্মজ্ঞান এবং ক্ষত্রিয় তেজ সম্পন্ন ব্যক্তিদিগের কুলের শিরোভূষণ, অর্থ গ্রহণ করা যাইতে পারে । এক্ষণে বিবেচ্য “ স ব্রহ্মক্ষত্রিয়ানামজনি কুলশিরোদাম সামন্তসেনঃ ” এই চরণে হেমন্তসেনের জাতিনির্দেশ হইতে পারে কি না ? শাস্ত্রানুসারে দ্বিজাতি মাত্রেরই বেদ এবং ংস্কৃত সাহিত্য অধ্যয়নে অধিকার আছে । প্রাচীনকালে ব্রাহ্মণ ভিন্ন দ্বিজাতিদিগের মধ্যে অনেকে বিদ্যাবলে ব্রাহ্মণ সদৃশ ক্ষমতা লাভ করিয়া ছিলেন ; এবং দ্রোণাচাৰ্য্য প্রভৃতি ব্রহ্মকুলে জন্ম গ্রহণ করিয়াও ক্ষত্রিয়-বীৰ্য্য-সম্পন্ন ছিলেন। অতএব ভারতবর্ষের ভূপতিদিগের মধ্যে কেহ কেহ ক্ষত্রিয় না হইলেও, তাহাদিগের ব্ৰহ্মতেজ এবং ক্ষত্রবীর্য্য বিশিষ্ট হওয়া অসম্ভব হইতে পারে না। স্থতরাং বিজয়সেনকে ব্রহ্মতেজ । এবং ক্ষত্রিয় পরাক্রয় সম্পন্ন ব্যক্তিদিগের কুলশ্রেষ্ঠ বর্ণনা করাতে র্তাহার জাতির কোন উল্লেখ হইতেছে না । বোধ হয় কবি সামন্তসেনকে পরাক্রমশালী নৃপতিদিগের অগ্রগণ্য মাত্র বলিলে, তদীয় আধ্যাত্মিক ব্রহ্মানুরাগ উল্লেখ করা হইল • পরিশিষ্ট্রে রাজসাহীর প্রস্তরঙ্কিত শ্লোকের পঞ্চম শ্লোক দেখুন |