প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:আর্য্যদর্শন - দ্বিতীয় খণ্ড.pdf/১৭৬

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


। अदि१ ॰२७५ ।। ডারউয়িনের মত । মহাত্মা ডারউয়িন সাহেব যে মত: প্রকাশ করিয়াছেন, তাহার ইতিবৃত্ত অতীব কৌতুকাবহ। চিরন্তন সংস্কারের | বিপরীত মত কত কষ্টস্তষ্টে অগ্রসর হয় { তাহ সেই ইতিবৃত্ত পাঠে বিলক্ষণ হৃদয়| ক্ষম হইতে পরিবে। বিশেষতঃ যাহা . স্থলদৃষ্টিতে স্বতঃসিদ্ধ বোধ হয় এবং যাহা ধৰ্ম্মশাস্ত্রের বিরুদ্ধ বলিয়া বিবেচিত | হয়, সে মতের অমুকূলে যত কেন তর্ক | থাকুক না, তাহার প্রতিষ্ঠা বহুকালের i প্রয়াস ও পরীক্ষা সাপেক্ষ । ইহা সামান্য বিশ্বত্বের বিষয় নহে যে ১৭৯৪-৯৫ খৃঃ অন্ধে পৃথিবীর সর্ব প্রধান তিনটি দেশে | যুগপৎ এই মহৎ মতের প্রথম আভাস প্রকাশ পাইবে। ডারউয়িনের পিতামহ । ইংলণ্ডে, সুপ্রসিদ্ধ কবি গেট জৰ্ম্মণিতে এবং সেন্ট হেলেয়ার ফুন্সে এই কথা উত্থাপন করেন যে উদ্ভিদ ও জীবগণ সৃষ্টির সময় হইতে একভাবে রহিয়াছে এমন নহে, কিন্তু নানা পরিবর্তন প্রাপ্ত হইয়া ক্রমশঃ র্তাহীদের মধ্যে ফরাসিস পণ্ডিত সেন্ট | হেলেয়ার বলেন, যদিও ভিন্ন ভিন্ন অবস্থা নিবন্ধন এই সকল পরিবর্তন ঘটিয়াছে ; তথাপি তাহার বিশ্বাস । এই যে বর্তমানে | জাতিপরম্পরায় আর কোন পরিবর্তনও রূপান্তর হইতেছে না। তৎপরে উনবিংশ রূপান্তরিত হইয়াছে। ] শতাব্দীর প্রথমে স্বপ্রসিদ্ধ ফরাশিদ ডারউয়িনের মত । । (দ্বিতীয় প্রবন্ধ । ) প্রকৃতিতত্ত্বজ্ঞ লামার্ক কয়েক খানি গ্রন্থে উক্ত মত সমর্থন করেন। তিনি সৰ্ব্বপ্রথম স্পষ্টাভিধানে নির্দেশ করেন, যে কি জড় প্রকৃতিতে কি জীবগ্রকৃতিতে যত প্রক্রিয়া হইতেছে, তৎসমস্ত চিরস্থায়ী । নিয়মের অধীন, সময়ে সময়ে ঐশী শক্তির পরিচালনে সংঘটিত হয় এমন নহে। অতএব তৃণ হইতে মনুষ্য পর্যন্ত সমুদয় জাতি প্রাকৃতিক নিয়মানুসারে, ভিন্ন ভিন্ন জাতি হইতে যথাক্রমে जँड्ठ श्हेब्रप्श्। লামার্ক বলেন, যদি জাতি দকল পৃথক পৃথক সৃষ্ট হইত, তাহা হইলে তাহাদের আকার প্রকার, অবস্থা কাৰ্য্য প্রভৃতি সৰ্ব্বতোভাবে বিসদৃশ ও বিভিন্ন বলিয়া । বোধ হইত। কিন্তু প্রকৃতিতত্ত্ববিদের । অবগত আছেন, যে যখন কোনপ্রকার । জীব (যেমন “স্তন্যপায়ী”) নানা জাতিতে বিভক্ত হয় এবং তদন্তর্গত জাতিগুলি নানা শ্রেণীতে বিভক্ত হয়; তখন কোন বিভাগটিকে জাতি কোনটিকে বা শ্রেণী | বলা উচিত, তাহা নিরূপণ করা নিতান্ত দুষ্কর হইয়া উঠে। প্রত্যেক জাতি পৃথক পৃথক্ স্বল্প হইলে এরূপ সন্দেহ ঘটবার বিষয় কি ? পরস্তু যদি আমরা গৃহপালিত জন্তুদিগের রূপান্তর পর্য্যালোচনা করিয়া দেখি তাহ হইলে প্রকৃতিতে এরূপ পৰি র্তন কোন মতে অসম্ভব বোধ হয় না। গ্রন্থতিতে পরিবর্তন মান কারণে