প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:আর্য্যদর্শন - দ্বিতীয় খণ্ড.pdf/৩৯

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


| করিতে অক্ষম। | ৩২ দর্শন। বৈশাখ ১২৮২। অধৰ্ম্ম । ধন্মের এই প্রকার ভাব জানিয়া —সতীত্ব বিষয়ে। তবে আমরা সতীত্ব শুনিয়া ও আমরা অবলা স্ত্রীজাতির | কাহাকে বলি তাহাই এক্ষণে বিচাৰ্য্য প্রতি বড় কঠিনতর নিয়ম নির্দেশ করি | হইতেছে । • য়াছি। তাহাদিগকে আমরা একেবারে নিষ্পাপী ও নিষ্কলঙ্ক চাই। কি বিষয়ে ? ভূমিকম্পের উপকারিত | প্রবল বাতা, ভূমিকম্প, আগ্নেয়গিরির | অগ্নুৎপাত, বজ্ৰাঘাত প্রভৃতি প্রাকৃতিক উৎপাত সমূহ অজ্ঞাতসারে উপস্থিত হইয়া | মনুষ্যের জীবন সম্পত্তি বিনষ্ট করে । | | মনুষ্য এই সমুদয়ের অত্যাচার নিবারণ জ্ঞান প্রভাবে স্ববশে আনির মনুষ্য প্রকৃতিকে কামছুঘা করিতে সমর্থ হইয়াছে, প্রাকৃতিক শক্তিসমূহ একত্র হইয় নিয়তই মন্তুষ্যের সুখ স্বচ্ছন্দ বৃদ্ধি করিতে ব্যাপৃত হইতেছে। জ্ঞান প্রেরণ করিতেছে। কিন্তু তাই বলিয়া কি মনুষ্যের ক্ষমতা অব্যাহত বলিয়া সিদ্ধান্ত করিতে পারা যায়। কখনই नरश्। প্রকৃতি যখন স্বয়ং" প্রকৃতিস্থ করিতে থাকে, তখন আমরা মুখাসীন বলে মনুষ্য ভীষণ তরঙ্গ মালা-বিলোড়িত | इईब ब्रांनन अन्नङब कब्रि । बाबू | অপার সাগর অতিক্রম পূৰ্ব্বক নিজ | অভীষ্ট দেশে উপনীত হইতেছে, বিজ্ঞান | শাস্ত্রের সাহায্যে মনুষ্য অতি অপ | সময়ের মধ্যেই শত সহস্ৰ ক্রোশ দূরবর্তী প্রদেশে যাতায়াত করিতেছে, ও নিমে ষের মধ্যে এক দেশের সংবাদ দেশান্তরে ক্রমশ: | o གླིཤཱ──- -

. == তখনই মনুষ্য প্রকৃতির উপর আপন ক্ষমত। প্রকাশ করিতে সমর্থ, কিন্তু প্রকৃতি যখন ভীষণমূৰ্ত্তি ধারণ করেন, তখন মনুষ্য, ক্ষুদ্র কীটবৎ তাহার ভয়ে আত্মরক্ষার্থ দূরে অপসরণ করে। কিন্তু আত্মরক্ষা মঙ্গুষ্যের ইচ্ছাধীন নহে। প্রকৃতির ईक्लाइड्रेट्न भश्वाद्र श्रदाइडि, मछूबा বিপত্তি। মৃদুগন্ধ গন্ধবহের মন্দগতি কি भर्नाङ्त्व, ३श्। बथन भन्न भन्न दङ्ने আমাদিগের প্রাণ সঞ্চারের নিদান। কিন্তু এই অসীম মঙ্গলালয় বায়ুও মধ্যে মধ্যে বিষম উগ্র মূৰ্ত্তি ধারণ করিয়া আমাদিগকে ব্ৰাসিত করিয়া থাকে। বায়ুর ন্যায় অগ্নি জল প্রভৃতি অন্যান্য প্রাকৃতিক । পদার্থও মধ্যে মধ্যে ভীষণমূৰ্ত্তি ধারণ ! পূর্বক মন্থয্যের প্রাণসংহার করিয়া থাকে। মনুষ্য সহস্ৰ বুদ্ধির প্রভারেও উহার প্রতিৰিধান করিতে পারে না। :