প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:আর্য্যদর্শন - দ্বিতীয় খণ্ড.pdf/৪৬৮

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


মাঘ ১২৮২। মেহের আলি । 86 X বটতলায় ভগ্ন আপণির সম্মুখে রাজপথের | না। বেণা কামুন ভয়ে মৌলভির স্বাক্ষী উপর সেই সন্তু স্থি মৌলভি এক চৌকীতে আসিল না ও মোক্তার জয়ী হইল। বসিয়া আছেন। ভূত্য পিতলের গুড় | এখন আমীর আলি মৌলভি সাহেবের গুড়ীতে তামাক দিয়া ফুৎকার দিতেছে ; চেতনা इईन ८ष, মোক্তার সামান্য শত্ৰু | এক জন দীঘ ছত্র গুটাক্টর তদলম্বনে । নহে, আর আদালত সামান্য স্থল নহে । দণ্ডায়মান আছে এবং দোকানী কিঞ্চিৎ | সত্য ধৰ্ম্ম ও ন্যায় থাকিলেই যে সংসারে কুঞ্জ হইয়া মৌলভি সাহেবের কথা শুনি | নিৰ্ব্বিত্বে থাকা যায় তাহাও নহে। এখন তেছেন। মৌলভি সহচর এক ব্যক্তি | বুঝিলেন ক্রমে ক্রমে তাহার যথা সৰ্ব্বস্ব এবং দোকানীর সহিত মকদ্দামা পরাজয়ের | গিয়া তিনি নিঃস্ব হইতে পারেন। এই অবস্থা বলিতেছেন। অন্যায় করিয়া | চিন্তায়, ভঁাতার অত্যন্ত ক্ষোভ হইয়াছিল মোক্তার তাহার প্রধান সম্পত্তি হরণ | কিন্তু তিনি ধৰ্ম্মপরায়ণ ব্যক্তি । সুতরাং করিল পরিতাপ করিতেছেন। মধ্যে | ধৰ্ম্মপথে থাকিয়া সৰ্ব্বস্বাস্ত হইয়া ফকিরী দোকানী পরিতাপ করিতেছে ও আদা, # করিতে হয় তাহাতেও তিনি লতকে নিনা করিতেছে। প্রস্তুত ছিলেন । মৌলভি নিকটস্থ কুলগ্রাম গ্রামের | এমত সময় আসগড় আলি মোক্তার প্রধান ধনাঢ্য ব্যক্তি। তিনি বিদ্যাবুদ্ধি | দলবল সহ উপনীত হইল ; মৌলভিকে দয়া ধৰ্ম্ম ও ধন ঐশ্বর্যে দেখিয়া বৃক্ষ-বাটিকায় প্রবেশ করিল। কুল গ্রামের আমীর আলি মৌলভির | তথা হইতে শুনিতে পাইল মৌলভি কহি ভদ্রতা ও বদান্যতায় উপকৃত হয় নাই | তেছেন “ভাল, কালের গতিকে যদি ঐ অঞ্চলে এমত লোক নাই। র্তাহারই | সৰ্ব্বস্ব যায়, মনের মুখ লয় কাহার সাধা ? নিজ ভৃত্য আসগর আলি মোক্তার যে ও পাষণ্ডের মনের মুখ দেয় কাহার র্তাহার বিপক্ষতাচরণ ও সৰ্ব্বনাশ করিবে সাধ্য ?” আসগর কিঞ্চিৎ উচ্চস্বরে কহিয়া। কেই অনুভব করে নাই। তাহার ক্ষুদ্র | উঠিল, “হয়েছে কি? যাহা আছে সব | ক্ষুদ্র অনেক বিষয় মোক্তার নষ্ট করিয়াছে | যাবে! ভিটায় পুকুর হবে! তাহাতেও কিন্তু এবার তাহার একটা প্রধান সম্পত্তি | মনের মুখ যাইবে না ? যাহাতে মনের নষ্ট হইল। তিনি মোক্তার দ্বারা প্রভূত | মুখ যায় আসগরের তাহাও সাধ্য আছে! অর্থে আপন বালক মেহের আলির, নামে, আসগরের শুভ অদৃষ্ট কে খণ্ডন করিতে একটা তালুক ক্রয় করেন। মোক্তার | পারে?” : - অপর এক জন মেহের আলি নাম ধারীকে | মৌলভি সাহেব যেন শুনিতে পাইলেন | উঠাইয় তাহা হরণ করিল। মৌলভি | না, সহসা উঠিয়া গ্রামাভিমুখে গেলেন। অনেক বলিলেন হাকিমের মন ফিরিল | মোক্তার শ্মশ্র উল্টাইয়া দন্তে দন্তে