পাতা:আর্য্যাবর্ত্ত (চতুর্থ বর্ষ).pdf/৪৮

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


বৈশাখ, ১৩২০ ৷৷ অদৃষ্ট-চক্ৰ। ७:' তাহাকে স্বামীর অসীম যত্ন, তাহার আরামবিধানে স্বামীর ঐকান্তিক চেষ্টা-এ সব লক্ষ্য সে করিল ; লক্ষ্য করিয়া সে যে আনন্দ উপভোগ করিল, তাহা সে পূর্বে কখনও উপভোগ করে নাই। সে যখন পুত্রের মুখচুম্বন করিত, তখন মাতৃগর্বে গব্বিণী হইয়া সে মনে করিত, জগুতে তাহার মত সুখী কে ? মাতৃত্ব তাহার রমণীহৃদয়ে পূর্ণতা দান করিয়া যেন তাহাকে আরও উদার-আরও মধুর। -- আরও স্বাৰ্থত্যাগী করিল। কল্যাণীর প্রসবের পূৰ্ব্বে তাহার জননী তাহাকে লইয়া যাইতে চাহিয়াBBS DBBuLLLz BDBS BB BBD ED DDD DDD SSS DD DDDB BYY আপনার জীবন উৎসৃষ্টি করিয়াছিল-স্বামীর সামান্য সুখের জন্য সে আপনার প্রাণপাত করিতে পারিতি। তাহার পর তাহার জননী আসিতেও চাহিয়াছিলেন। পিতৃগৃহে সকলের অসুবিধা হইবে বলিয়া সে তাহাতেও সম্মত হয় নাই। সে সকলকে ভালবাসিত—তাই সকলে তাহাকে ভালবাসিত । সে আসন্ন প্রসবা শুনিয়া দানাপুরের সকল বাঙ্গালী পরিবারের মহিলারাই আসিয়াছিলেন । এমন কি নীরজার শ্বাশুড়ীও আসিয়া অত্যন্ত গম্ভীরভাবে অত্যন্ত “সেকেলে’ ব্যবস্থার অনুসরণের উপদেশ দিয়া গিয়াছিলেন। তঁহার অন্য-গৃহে গমন এমনই অভূতপূৰ্ব্ব ব্যাপার যে, ইহা লইয়া কয়দিন ধরিয়া মহিলা-মহলে আন্দোলন চলিয়াছিল। ‘ডাক্তার সাহেবের” পত্নী স্বভাবতঃ শুচিবাইগ্রস্তা ; বিশেষ তাহার কোলে সৰ্ব্বদাই কচি ছেলে থাকে। তথাপি তিনি সুতিকাগৃহে যাইয়া আবার স্নান করিতেও ভয় পায়েন নাই। আর “উকীল সাহেবের” পত্নী বিপুল দেহভার লইয়াও প্ৰসুতির শুশ্রুষা করিয়াছিলেন। তিনি তখনও সন্তানলাভসৌভাগ্যশালিনী হইতে পারেন নাই। কিন্তু রমণীহৃদয়ে অপত্যস্নেহ উছলিয়া উঠে। তাই তিনি কল্যাণীর এই সৌভাগ্যে BDBDBBD DDBBBB S BB DDD DDS S gBBD DDBDB DDS কৰ্ম্ম সারিয়া তিনি কল্যাণীর গৃহে আসিতেন—তাহার নবজাত শিশুকে ক্ৰোড়ে লইতেন। নীরজ, তাহার সংবাদ লইত ; কিন্তু শ্বাশুড়ীর অনুমতির BDD DBDB DD BDBLD KBDB DS নীরজা যে সরোজার ভগিনী কল্যাণী তাহা জানিত ; কিন্তু নীরজা তাহার পরিচয় জানিত না । কল্যাণী নীরজাকে দেখিয়া ভাবিত, সরোজা কেমন ? BDDD DD DBDBBD DBDB BBBDBBYYBBBD BDDD S SDDS S HDDBD সে এক দিন যতীশকে জিজ্ঞাসা করিল, “দিদি কি দেখিতে তাহার ভগিনীর