পাতা:আর্য্যাবর্ত্ত (চতুর্থ বর্ষ).pdf/৫২৮

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


* আশ্বিন, ཤིའ༠ t দুর্গাপুর গ্রামে রামতনু মুখোপাধ্যায়ের বাস। তঁহারা কত পুরুষ উক্ত প্রাচীন গ্রামখানিতে বাস করিয়া আসিতেছেন, ইতিহাস তাহার কোনও সন্ধান না। রাখিলেও, আমরা জানি যে, উক্ত দুর্গাপুর গ্রামের পার্শ্ববৰ্ত্তী দশখানা গ্রামের মধ্যে মুকুজ্জেরা প্রাচীন বনিয়াদী বংশ। রামতনুর পিতা-পিতামহ প্রভৃতি কেহই চাকরী করিয়া জীবিকা-অৰ্জন করেন। নাই। কুলীন ব্ৰাহ্মণ-গৃহে পূৰ্বপুরুষের প্রতিষ্ঠিত শিবলিঙ্গ, শালগ্রাম ও সূৰ্য্যদেব যথারীতি পূজা-ভোগ খাইয়া আসিতেছেন ; নিষ্কার জোত জমী, বাগান, পুষ্করিণী প্রভৃতি তাহদের ছিল ; তজ্জন্য তঁহাদের কোনও পুরুষ ষের কাহাকেও আত্মবিক্রয় করিয়া জীবিকা অর্জন করিতে হয় নাই ? বিশেষ চাকরী তাহারা ঘূণ্য মনে করিতেন। রামতনু ঘরে লাঙ্গল গরু রাখিয়া যথারীতি পৈতৃক জমীগুলি আবাদ করিতেন ও তাহা হইতে যে আয় হইত, তদ্বারা তঁহার সংসারে মোটা ভাত মোটা কাপড়ের ব্যয় অবাধে সন্ধুলান হইয়া যাইত। বসত-বাড়ীর অনতিদূরে পুষ্করিণীর পাড়ে । নানা প্ৰকার ফল-মূল উৎপন্ন হইত এবং ক্ষেত্রে আলু, বেগুন, ঝিঙ্গে, করলা, মূলা প্রভৃতি তরিতরকারীরও অভাব ছিল না। গ্রামের তিনটি ভাল পুষ্করিণীই মুকুজেদের। লোকজন, অতিথি অভ্যাগত হঠাৎ বাড়ীতে আসিলে। কোনও দিনই তঁহাকে বাজারে মৎস্যের জন্য লোক পাঠাইতে হইত না । পুকুরের পাড়ে আম, জাম, তিন্তিড়ী, নারিকেল, আমড়া, পেঁপে প্ৰভৃতি নানাজাতীয় বৃক্ষ রোপিত ছিল। ইত্যর প্রাণীর দল যথেষ্ট উৎপাত করা সত্ত্বেও যাহা থাকিত, তাহাতেই তাহার বৎসরের খরচ ও পাঁচ জনকে দেওয়ার কাৰ্য্য নিষ্পন্ন হইত। এইরূপে মুকুজে-পরিবার পরমসুখে দিনযাপন । করিতেন। তাহারা গ্রামের কত লোকের উত্থান-পতন দেখিয়াছেন, কত । দরিদ্রকে অবস্থাপন্ন এবং কত অবস্থাপন্ন গৃহস্থকে দরিদ্র হইতে দেখিয়া-- ছেন ; কিন্তু ভঁাহারা সেই সমানভাবেই দিন কাটাইয়া আসিতেছেন। ; মোটা ভাত, মোট বক্সের বেশী কিছু প্রার্থনীয় তঁহাদের ছিল না । , রামতনু মুখোপাধ্যায় পূৰ্বপুরুষের বাৎসরিক শ্ৰাদ্ধ হইতে আরম্ভ ৈ করিয়া প্রতি পূর্ণিমায় সত্যনারায়ণের পূজাট পৰ্যন্ত বাদ দিতেন না।