পাতা:আর্য্যাবর্ত্ত (তৃতীয় বর্ষ).pdf/২০৪

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


»br R আৰ্য্যাবৰ্ত্ত । ७ वर्ष - ७ ज३१T । বলিয়া মনে হয় না । আমি রূপের অপেক্ষা লাবণ্যের অধিক পক্ষপাতী । গ্ৰীকৃ, কবি বাস্তবিকই বলিয়াছেন যে, লাবণ্যের বড়িশ না থাকিলে রূপের টোপ কোনও কাৰ্য্যেরই হয় না। আমার এক বন্ধু পরিহাস করিয়া বলিতেন। যে, সুবিখ্যাত নুরজাহান রাজী ওজনে এক ছটাক ছিলেন এবং, তাহার দেহে আর যাহা কিছু ছিল তাহা কেবল লাবণ্য। আমার দৃঢ় বিশ্বাস যে, নুরজাহানের রূপের অপেক্ষা লাবণ্য অধিক ছিল, নচেৎ তিনি বত্ৰিশ বৎসর বয়সে কখনই জাহাঙ্গীরের সিংহাসন অধিকার করিতে পারিতেন না । ইতিহাসেও তাহার রসিকতা, কাব্যপ্রিয়তা, শিল্পকুশলতা ও কাৰ্য্যদক্ষতার যথেষ্ট পরিচয় পাওয়া যায়। মিশরের ষে রাজী ক্লিওপেটার প্ৰেমে মজিয়া আণ্টনি রোমসাম্রাজ্যের অৰ্দ্ধাংশ এবং স্বীয় প্ৰাণ পৰ্য্যন্ত বিসর্জন দিয়াছিলেন, তিনি যেরূপ জগদ্বিখ্যাত সুন্দরী ছিলেন তদপেক্ষা অধিক লাবণ্যবতী ছিলেন । র্তাহাকে সম্বোধন করিয়া আণ্টনি সেকৃসপীয়ারের একখানি সর্বোৎকৃষ্ট নাটকের একস্থলে বলিতেছেন “ওগো কলহতৎপর রাজমহিষি ! তোমাকে ধিক ! তোমার তিরস্কার, তোমার হাসি, তোমার কান্না, তুমি যখন যাহা কিছু কর, সবই তোমাকে কেমন সুন্দর সাজে ! এমন কোন উৎকট মনোবৃত্তি নাই যাহা তোমাতে আবিভূতি হইলে সুন্দর দেখাইতে ও প্রশংসা লাভ করিতে বিধিমতে চেষ্টার ত্রুটি করে।” ইহাই লাবণ্যের প্রধান লক্ষণ। রূপে মনের পরিচয় পাওয়া যায় না, কিন্তু লাবণ্যে পাওয়া যায়। এই জন্য লাবণ্য নিজাব রূপকে সজীব করে। ডেভনসিয়ারের ডিউক-পত্নী সুবিখ্যাত সুন্দরী জজিয়ানার অসাধারণ মানসিক সৌন্দৰ্য্য ছিল বলিয়া তাহার রূপের অপেক্ষা লাবণ্যের খ্যাতি অধিক ছিল। যাহার লাবণ্য আছে সে যাহা করে তাহাই সুন্দর দেখায়। এই জন্য ফ্লেরিজেল তাহার প্রণয়িণী পাডিটাকে সম্বোধন করিয়া বলিয়াছিলেন, SuD DDD DD BDBD DDD DBDD DBBB DBB BBBS BD BBB DDD BBDSDD BDD BDS tD DBDD LLS BDBDB BB DD DDB D uBDDBD BBD BDBBB DDD SS BBDDBDDDD DB DDB B BDBDBBD DD DBD DBD ভাব-বাজক মুখমণ্ডলে ও বিশ্বগ্রাহী নয়নযুগলে তাহার ছায়া পড়িয়া প্ৰতিমুহুর্তে নূতন নুতন সৌন্দৰ্য্য উদ্ভাবিত করে। BB Bi tKLKBB sBDD DBtD DDS SDY K GD