পাতা:আর্য্যাবর্ত্ত (তৃতীয় বর্ষ).pdf/২৫৭

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


"** বঙ্কিমচন্দ্র তাহার শেষ রচনায় তাহার স্বদেশীয় বেদবিদ্যাধিগণকে সম্বোবন করিয়া বলিয়াছিলেন, বেদসম্বন্ধে প্ৰতীচ্য পণ্ডিতদিগের মত এ দেশে এতই প্ৰচলিত যে, তাহাদিগের মত অভ্ৰান্ত বিবেচনা করিয়া ভ্ৰমে পতিত হইবার আশঙ্কা বড়ই প্ৰবল। প্রতীচ্যে পণ্ডিতগণ র্তাহাদিগের কৃত কৰ্ম্মের। জন্য প্ৰশংসাহৰ সন্দেহ নাই ; কিন্তু বিচার না করিয়া তাহাদিগের মত অভ্ৰান্ত বলিয়া গ্ৰহণ করা কোনরূপেই সঙ্গত নহে । ক্ষে ভারতীয় শিল্পসম্বন্ধে আলোচনাকালে আমাদিগকে সর্বপ্রথমে এই মহাজনবাক্য স্মরণ করিতে হইবে । এ দেশে ভারতীয় শিল্পের আলোচনা প্ৰধানতঃ যুরোপীয়দিগের দ্বারাই হইয়াছে। ফাগুসন ও কানিংহাম হইতে ভিনসেন্ট স্মিথ ও হাভেল পৰ্য্যন্ত য়ুরোপীয়গণ ভারতীয় শিল্পের ইতিহাস রচনার চেষ্টা করিয়াছেন-ভারতীয় শিল্পসম্বন্ধে গ্ৰন্থরচনা করিয়াছেন। সরকারী পুরাবস্তুবিভাগের বিবরণীতে ভারতীয় শিল্পের ইতিহাস রচনার উপাদান সঞ্চিত হইতেছে । দুঃখের বিষয়, য়ুরোপীয় পণ্ডিতগণ।--ভারতীয় সভ্যতা ও ভারতীয় শিল্প অন্যান্য দেশের সভ্যতা ও শিল্প অপেক্ষা আধুনিক ও হীন এই পূর্বাজ্জিত সংস্কার সর্বত্র সম্পূর্ণরূপে পরিহার করিতে পারেন না,—তাই তাহাদিগের সিদ্ধান্ত বিচার না করিয়া অভ্রান্ত বলিয়া গ্ৰহণ করা কোন ক্রমেই সঙ্গত নহে। আরও দুঃখের বিষয়, বর্তমান বৈজ্ঞানিক প্ৰণালীতে শিল্পের ইতিহাস সংগঠনক্ষম ভারতীয় পণ্ডিতগণ তারতীয় শিল্পের আলোচনায় আকৃষ্ট হইতেছেন না । রামরাজের ভারতীয় স্থাপত্যসম্বন্ধীয় গ্ৰন্থ : ব্যতীত ভারতবাসীর ভারতীয় শিল্পসাহিত্যবিষয়ক গ্ৰন্থ একান্তই বিরল । র্যাহারা ভারতীয় শিল্পসম্বন্ধে য়ুরোপীয় শিল্পসমালোচকদিগের ভ্রান্ত মতের প্রতিবাদে প্ৰবৃত্ত হইয়াছিলেন, রাজা রাজেন্দ্ৰলাল মিত্ৰ তাহাদিগের মধ্যে প্রধান । তিনি এই কাৰ্য্যে প্ৰবৃত্ত হওয়ায় বাঙ্গালা সাহিত্য তঁহার সাধনাক্ষেত্ৰ হইতে নির্বাসিত হইয়াছিল। কিন্তু তঁাহার কৃত কাৰ্য্যের গুরুত্ব বিচার করিয়া আমরা সে জন্য দুঃখ করি না। তঁহার উড়িষ্যা ও বুদ্ধগয়া সম্বন্ধীয় বিরাট গ্রন্থদ্বয় সমগ্র সভ্য সমাজে ভারতীয় শিল্পের গৌরবের পরিচয় দিয়াছে। এই স্থলে আর একজন ভারতবাসীর নাম বিশেষ উল্লেখযোগ্য। মৃত্যু পূৰ্ণচন্দ্র মুখোপাধ্যায় মহাশয়কে তাহার। The Calcutta University Magazine, 89 f Hindu Architecture s