পাতা:আর্য্যাবর্ত্ত (তৃতীয় বর্ষ).pdf/৮৮৫

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


চৈত্র, ১৩১৯ । রাধারাণী । bም8 8 একমুষ্টি অন্নের জন্য বাস করিবেন, এ চিন্তা তাহার পক্ষে অসহনীয়। বৃদ্ধা তাহাকে অনেক করিয়া বুঝাইলেন ; কত দৃষ্টান্ত দিলেন। কিন্তু রাধারাণী অটল । সে যে পণ করিয়াছে, তাহা কিছুতেই ভঙ্গ হইবে না। এ সংসারে রাধারাণীর ভালবাসার পাত্র কেহ ছিল না। সে তাহার সরল হৃদয়ে সকলকেই ভালবাসে ; কিন্তু যৌবনের প্ৰেম কাহাকে বলে, রাধারাণী তাহা কখনও উপলব্ধি করে নাই। সে কৈলাসের ব্যবহারে যথেষ্ট প্রীতি অনুভব করিত - কৈলাসকে স্নেহ কারিত । সে শৈশব হইতে কৈলাসকে খেলার সাণী জ্ঞানে মোহ করিয়া আসিয়াছে। কিন্তু কোন ও দিন তাহদের উভয়ের মধ্যে প্ৰণয়ের BBD DDD DBBBDB K BBD BDDS BDBB DBBDB BD DBDD DS DD পৰ্য্যন্ত। কৈলাসের পিতা যখন তাহদের এইরূপে সৰ্ব্বনাশ সাধন করিতেছিল, তখনও রাধারাণী কৈলাসের ব্যবহারে মুগ্ধ হইয়া তাহাকে স্নেহ হইতে বঞ্চিত করিতে পারে নাই। কৈলাসও তাহাদের প্রতি যথেষ্ট অনুরক্ত ছিল ; তাহার পিত। যে রাধারণীর পিতার কৃপাতেই গ্ৰামে বাস করিতে পারিয়াছিল, তাহা সে ভুলে নাই। যাহা হউক, এক দিন বাঞ্ছারাম রাধারাণীর ঠাকুরমা’র নিকট উপস্থিত, হইয়া নানা প্রকার মিষ্টকথার পর তাহার পুত্রের সহিত রাধারাণীর বিবাহের কথা উত্থাপিত করিল। বৃদ্ধ ঘূণায় তাহার মুখ হইতে স্বীয় দৃষ্টি অপসারিত করিয়া লইয়া গৃহান্তরে গমন করিলেন। বাঞ্ছারাম অপমানিত হইয়া প্ৰতিজ্ঞ করিল, তাহাদিগের সর্বনাশ করিয়া তাহাদিগকে গ্ৰাম হইতে তাড়াইবে। বাঞ্ছারাম জমীর ফসলে ও পাটের চাষে যথেষ্ট লাভবান হইয়া উঠিতেছিল। পাটের দর খুবই চড়া, তাই বাঞ্ছারাম। ধনমদে। এতদূর দৃপ্ত হইয়া উঠিয়াছিল SS LBB BDDBB DDD DDD DB SDD DD BDBDBBD DS ( . ) কৈলাস ও পাড়া ডাক্তার বাবু দুদিনে বুদ্ধার সাহায্য করিতেছিলেন। DBDDDBD DDDD DBSDSDBDBS D DBDBB SBBBB BDBDDBD DBBDSBDBBD BDBB ডাক্তার বাবুর সঙ্গে পরামর্শ করিয়া গোপনে সে অভাব পূর্ণ করিয়া দিত। একদিন রাধারাণী ঠাকুর-ঘর পরিষ্কার করিতে করিতে ভাবিতেছে, এ কি ? কৈলাস আমার কে ? সে তাহার পিতার অজ্ঞাতসারে আমাদের প্রতি এরূপ সদয় ব্যবহার করে কেন ?- এমন সময়ে কৈলাস আসিয়া উপস্থিত। DD DBBB BKD DDBB DB ZS BDBD DD DBBDB