পাতা:আর্য্যাবর্ত্ত (প্রথম বর্ষ).pdf/২৯

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


àR আৰ্য্যাবৰ্ত্ত । - RN বিষয় বিন্যাস । DD DDBD SDD DBD D LDDBBD BB BLB DBBY BDLSS LBDD BBsD DBDBD ED sD BBBBDD S DD এই ছয় খণ্ডে বিভক্ত পুস্তকের প্রথম পাঁচ খণ্ডে দশ জন শিখগুরুর জীবনবৃত্ত ও উপদেশমালা প্ৰদান করিয়াছেন। সীক্ষিল শিখ গুরুত্ন উপদেশ লিখিত ‘ ও রক্ষিত হয় নাই। সুতরাং যাহাদের লিখিত ‘উপদেশ বর্তমান আছে, জীবন-বৃত্তের সহিত কেবল তাঁহাদের উপদেশ এই গ্রন্থে অনুদিত হইয়াছে। ধাঁহাদের লিখিত উপদেশ নাই, তাহাদের কেবল জীবনকথাই প্ৰদত্ত হইয়াছে। ষষ্ঠ খণ্ডে “ভাগত” দিগের জীবন কথা ও উপদেশ আছে। ভক্ত এই কথা হইতে “ভগত” বা “ভাগত” এই কথার উৎপত্তি হইয়াছে। ভক্ত কথা হইতে “ভকত” কথার উৎপত্তি । কালক্রমে স্থানবিশেষে কী স্থানে গা উচ্চারিত হয় । ইহা হইতেই “ভগত” বা “ভাগত” কথা উৎপন্ন হইয়াছে । গুরু নানকের আবির্ভাবের পূর্বে ভারতে যে সমস্ত একেশ্বরবাদী ধৰ্ম্মসংস্কারক আবিভূতি হইয়াছিলেন, তাহারাই শিখগণ কর্তৃক “ভাগত” নামে অভিহিত। জয়দেব, নামদেব, রামানন্দ, কবীর ও সেখ ফরিদাই ভাগতুগণের মধ্যে বিলক্ষণ যশস্বী । অন্যান্য ভাগতের জীবন-কাহিনীর সহিত ইহাদের জীবন-কাহিনীও আলোচ্য পুস্তকের ষষ্ঠ খণ্ডে বিন্যস্ত হইয়াছে। ইহাদের উপদেশমালা আংশিকভাবে গুরু নানক সাহেবের চিন্তাম্রোতঃ একেশ্বরবাদের দিকে প্ৰধাবিত করিয়া দিয়াছিল একথা অনায়াসেই বলা যাইতে পারে। {2foot \Q5 | মিঃ ম্যাকালিফ লিখিয়াছেন যে, পঞ্চনদ প্রদেশের লাহোরের সন্নিহিত তালওয়ান্দী গ্রামে ১৪৬৯ খৃষ্টাব্দে শিখ জাতির আদি গুরু মনস্বী ও মহাপ্ৰাণ নানক সাহেব জন্মগ্রহণ করিয়াছিলেন। এ সম্বন্ধে একটু মতভেদও দৃষ্ট হয়। কেহ কেহ বলেন, তালওয়ান্দী গ্রামে গুরু নানকের পিতৃদেব বাস করিতেন বটে, কিন্তু তিনি ভূমিষ্ঠ হইয়া কনকচ্ছ গ্রামে তাহার মাতামহের গৃহই পুত করিয়াছিলেন । বঙ্গদেশের ন্যায় পঞ্চনদ প্রদেশেও সাধারণতঃ কন্যা প্ৰথম গর্ভবতী হইলেই পিতৃগৃহে নীতা হুইয়া থাকেন। এ সম্বন্ধে প্ৰমাণ অত্যন্ত বিসংবাদী। কিন্তু নানক এই নামই যেন তাহার মাতামহ গৃহে ভূমিষ্ট হওয়ার প্রমাণ প্ৰদান করিতেছে। যে সকল বালক মাতামহ গৃহে ভূমিষ্ঠ