পাতা:আর্য্যাবর্ত্ত (প্রথম বর্ষ).pdf/৩৮৮

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


কুমার রাজার গড়। ዓ2

সে দুই শত বৎসরের অধিক দিনের কথা । শাক খালির রাজেশ্বর মুখো- ? পাধ্যায় পাশ্ববৰ্ত্তী গ্রামের ব্ৰাহ্মণ জার্মাদারের রামনগর পরগণার নায়েব ছিলেন । জমীদার রামতারণ ভট্টাচাৰ্য্য বৃদ্ধ, ধৰ্ম্মপরায়ণ ও আশ্রিত বৎসল। র্তাহারা সে অঞ্চলে পুরাতন জমীদার। প্ৰজারা সাধারণতঃ তঁাহাকে ‘রাজা’ বলিত। ' র্তাহার আশ্রয়ে তাহার দূরসম্পৰ্কীয় কুটুম্বপুত্র রাজেশ্বর প্রতিপালিত হইতে- , ছিলেন । লাভের উপাদান পাইলে লোভ-সম্বরণ অনেকের পক্ষেই দুঃসাধ্য ; ধনাগমের । সুযোগে রাজেশ্বরের লোভ ক্রমেই বাড়িতে লাগিল। শেষে তঁাহার অত্যাচারে । প্ৰজারা পীড়িত হইতে লাগিল। তাহারা জমাদারের নিকট আবেদন করিল। রামতারণা কৰ্ম্মচারীকে সতর্ক করিয়া দিলেন । কিন্তু তাহাতে সুফল না। না ফলিয়া কুফলই ফলিল। রাজেশ্বর প্রজাদিগের প্রতি ক্রুদ্ধ হইয়া অত্যাচারের মাত্রা বাড়াইলেন। প্ৰজার ‘মরিয়া’ হইয়া উঠিল । শেষে তাহারা এক দিন নিকটবৰ্ত্তী গ্ৰাম হইতে কাছারীতে প্ৰত্যাবৰ্দ্ধনপর রাঞ্জেশ্বরকে রাত্রির অন্ধকারে পাইয়া । প্ৰহার করিল। তঁহার সঙ্গীরা পলায়ন করিল। প্ৰজার রাজেশ্বরকে একটি বৃক্ষে বাধিয়া রাখিয়া প্ৰস্থান করিল। প্ৰভাতে কাছারীর ভূত্যবৰ্গ আসিয়া র্তাহার উদ্ধারসাধন করিল। রাজেশ্বর আসিয়া রামতারণকে এ কথা জানাইলেন ; গ্রামবাসী দিগকে উপযুক্ত শিক্ষা দিবার অনুমতি প্রার্থনা করিলেন। রাজেশ্বরকে বলিলেন, যদিও তঁহারই দোষে প্ৰজারা এ অত্যাচার করিয়াছে, তথাপি তিনি দোষীদিগের শাস্তিবিধান করিতেন । কিন্তু কাহার এ কাৰ্য্য করিয়াছিল, তাহ যখন জানা যায় না, তখন অপরাধীদিগের দোষে নিরপরাধদিগকেও দণ্ডিত করিলে অধৰ্ম্ম হইবে। এই ব্যবস্থায় রাজেশ্বর আপনাকে অত্যন্ত অপমানিত বােধ করিলেন। ফলে, কয়দিন পরে একদিন নিশীথে একখানি গোযান রাজেশ্বরকে তাহার পত্নী । কাত্যায়নীকে ও র্তাহার শিশুপুত্র কমলেশকে লইয়া গ্ৰাম হইতে বাহির হইয়া । গেল । [२]