পাতা:আর্য্যাবর্ত্ত (প্রথম বর্ষ).pdf/৬৬২

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


পৌষ, ১৩১৭ সমালোচনা । ৬৩৭ অপেক্ষা বেশী দুগ্ধ দেয়।” ইহা সৰ্বত্র সত্য নহে। কলিকাতার বাজারে যে সকল মুলতানী, হিসাের, নেলোরী প্রভৃতি গাভী পাওয়া যায় যে সকল গাভী সাধারণ মহিষ অপেক্ষা অধিক দুগ্ধ দেয়। তবে “মহিষ-দুগ্ধ গো-দুগ্ধ অপেক্ষা বেশী ঘন এবং উহাতে মাখমের পরিমাণ গো-দুগ্ধ অপেক্ষা অধিক থাকে।”- তাহাতে অৰ্দ্ধেক পরিমাণ জল দিলেও গোদুগ্ধ অপেক্ষা পাতলা বোধ হয় না; } সেইজন্য অসাধু ব্যবসায়ীরা মহিষের দুগ্ধ ব্যবহার করে। গ্রন্থমধ্যে একটি মন্তব্যে আমাদের আপত্তি আছে। রায় চুণীলাল বসু বাহাদুরের মত সুপণ্ডিত, সৰ্বজনপ্রিয়, অমায়িক ও বিনয়ী ব্যক্তির এই মন্তব্যে সত্যসত্যই আমরা বিস্মিত ও ব্যথিত হইয়াছি। আমিষ ও নিরামিষ । আহারের গুণবিচার করিতে যাইয়া গ্ৰন্থকার লিখিয়াছেন- “কত বকধাৰ্ম্মিক । বৈষ্ণবকে হবিষ্য ভক্ষণ করিয়া কৃষ্ণলীলার চূড়ান্ত অভিনয় করিতে দেখা : যায়৷ ” এই মন্তব্যে গ্ৰন্থকার অকারণ বৈষ্ণব সম্প্রদায়ের মনে ব্যথা দিয়াছেন। কৃষ্ণলীলা রূপক-ইহাই অনেকের বিশ্বাস। উইলসন তাহার হিন্দুধৰ্ম্মসম্প্রদায় বিষয়ক উপাদেয় পুস্তকে লিখিয়াছেন, ভক্তি পঞ্চরসাত্মিক-শান্ত, দাস্য, সখ্য, বাৎসল্য ও মাধুৰ্য্য। লেখক যে কৃষ্ণ-লীলার কথা বলিয়াছেন, তাহা এই মাধুৰ্য্যরসের বিকাশ। যদি প্রচলিত বৈষ্ণব আচার কলুষকৰ্ম্মম কলঙ্কিত হইয়া থাকে —তবে তাহার কারণ থাকিতে পারে। হাণ্টার এক'gton fest(gr. Fat maggots and creeping parasites breed in the warm comfort of a national creed' as fift fift, "The religion of royalty everywhere becomes,sooner or later, a religion of luxury.” বৈষ্ণব ধৰ্ম্মমত ও নৃপতিবৃন্দ ও জনসাধারণ কর্তৃক অবলম্বিত হইয়াছে। সুতরাং যদি তাহাতে কদাচারের কলুষস্পর্শ হইয়া ? থাকে, তাহাতে বিস্ময়ের বিষয় নাই। খৃষ্টান ধৰ্ম্মেও এককালে আচার-বাহুল্য ? ধৰ্ম্মমতকে আচ্ছন্ন করিয়া ফেলিয়াছিল। তাহাতেই ‘প্ৰোটেষ্টাণ্ট’ সম্প্রদায়ের , উৎপত্তি । আচারের দোষে ধৰ্ম্মমতকে বিদ্রপ করা সঙ্গত নহে। “খাদ্যের প্রচার করিয়া চুণীবাবু বাঙ্গালীর পরম উপকার করিয়াছেন। ; আমাদের দেশে এরূপ পুস্তকের অত্যন্ত অভাব ; সুতরাং প্রচার অত্যাবশ্যক। আমরা আশা করি, সাহিত্য সভা এইরূপ পুস্তকের প্রচার করিয়া জনসাধারণের হিতসাধন করিবেন। : - и