পাতা:ইংলণ্ডের ডায়েরি - শিবনাথ শাস্ত্রী.pdf/২০৮

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


Nyre RRƏMega veft(sırf গেলে, বোগের গভীরতা ও ভক্তির উন্মাদনা এই দুইটি আমাদের দেশীয় ভাব। এই দুইটিকে একেবারে ভগ্ন হইতে দেওয়া উচিত নয়। কিন্তু এ দুইটিকে প্রধান হইতে দেওয়াও কতব্য নয় ; তাহাতে মানবকে জগৎহিতৈষণা হইতে দূরে লইয়া যাইবে। চারিদিকে দিন দিন সভ্য জগতের চিন্তা ও ভাবের যেরূপ বিকাশ দেখিতেছি, ধর্মের প্রতি যেরূপ আক্রমণ ও বীতশ্রদ্ধ ভাব দেখিতেছি, মানবহিতৈষণায় ষেরূপ প্রখর দৃষ্টি দেখিতেছি, তাহাতে যে-ধর্ম-সম্প্রদায় এখন মানব-হিতৈষণা হইতে দূরে পড়িবে ও স্বার্থপর ধর্মসাধনে নিযুক্ত হইবে, তাহার মৃত্যু অনিবাৰ্য ; তাহা স্বণার সহিত এক কোণে পরিত্যক্ত হইবে। ব্ৰাহ্মসমাজ সম্পূর্ণরূপে মানবহিতৈষণাতে আত্মসমৰ্পণ করিতে পারিতেছেন না বলিয়াই পশ্চাতে পড়িতেছেন। যে সকল গভীর চিন্তা গভীর দুঃখ দেশবাসীর হৃদয়কে আন্দোলিত করিতেছে, ব্ৰাহ্মসমাজ তাহা হইতে দূরে দাড়াইয়া, কেবল আধ্যাত্মিক তত্বের আলোচনাতে ব্যন্ত আছেন । ইহা হইলে ইহার সংবাদ কেহ লইবে না এবং ইহা অচিরকাল মধ্যে একটি ক্ষুদ্র সম্প্রদায় হইয়া থাকিবে। ইতিমধ্যেই এই দিকে ইহার গতি দৃষ্ট হইতেছে। এ গতি নিবারণ করিতে হইবে। এইটি বিলাত যাত্রার প্রধান শিক্ষা বলিয়া মনে হইতেছে। ‘ডেল্টাকটিভ ফিউরি অপেক্ষা কন্সট্রাকটিভ ল্যভ কে প্রধান করিতে হইবে। বৈকালে হাণ্টদের বাড়িতে যাওয়া গেল। ইহারা আমাকে বড় ভালবাসে। মেয়েগুলির উপরে আমারও ভালবাসা পড়িয়াছে। আমি গিয়া বলিলাম, তোমাদিগকে যেন এক যুগ দেখি নাই। নানা প্ৰকার কথাবার্তাতে সময় কাটতে লাগিল। লেখী বলিল, “শাস্ত্রী-মহাশয়, তুমি অনেক দিন আস নাই, আমাজ শীঘ্ৰ যেয়ে না। আজ আমাদের সঙ্গে থাক” । * আমি তার অভিপ্ৰায়টি ভাল বুঝিতে পারিলাম না ; রাত্রে থাকিতে বলিতেছে, কি সায়ংকালের কয়েক ঘন্টা থাকিতে বলিতেছে। আমি বুলিলাম, ‘তুমি কি বলিতেছে আমি বুঝিতে BBDD DDSSS BDD BDBuDDD YDB D DBDB DD DDBS BB BDB