পাতা:ইন্দ্রচন্দ্র.pdf/১১০

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


} ਝੋਣਂ5ਲ਼ يا مع نج স্বতীর বুকের ভিতর টেকির পাড় পড়িতে লাগিল ; মুখ শুখাইয়। অৰ্দ্ধেক হইল । মাষ্ট্রার মহাশয় জিজ্ঞাসা করিলেন “আমার মত আর কারে আসবার কথা আছে নকি ?” সরস্বতীর মুখে কথা নাই, প্রস্তর প্রতিমার দ্যায় অবনত মুখে দাড়াইয়া রহিল । আবার টক্‌ টক্‌ করিয়া শব্দ হইল । মাষ্টার মহাশয় বলিলেন ‘কে এসেচে দেখ ?” বাহির হইতে যিনি শব্দ করিতে ছিলেন, তিনি বিলম্ব হইতেছে দেখিয় পুনরায় একটু জোরে শব্দ করিলেন ; তথাপি স্বার উন্মুক্ত হইল না । শেষ ডাকিলেন, “সরস্বতী” । . আহবানকারীর কণ্ঠস্বর শুনিয়া মাষ্টার মহাশয়ের মুথ শুখাইল । ব্যস্ত হইয় বলিলেন, “ইন্দ্র চশ্রের মত গলার আওয়াজ বোধ হচ্চে না ?” সরস্বতী ললিল “ছ * মাষ্ট্রার মহাশয় আর কোথায় আছেন, সরস্বতীর পীয়ে জড়াইয়া ধরিলেন। বলিলেন, “তুমি আমার মা, আমাকে কোন রকমে বঁাচাও । ও আমাকে এখানে দেখলে কি আর আস্ত থাখবে। বল শীঘ্র বল আমি কোথায় যাই ।” কথা কহিন্তেছে অথচ দ্বার খুলিতেছে না দেখিয়া ইন্দ্র চন্দ্রের মনে বিষম সনেহ হইল। বিশেষ জোরে দ্বারে করাঘাত করিতে লাগিলেন । মাষ্ট্রার মহাশয় ভয়ে অস্থির হইয়া গুহের একোণ ওকোণ করিতে লাগিলেন । কোন উপায় ঠিক করিতে না পারিয়া সরস্বতী মাষ্টার মহাশয়কে বলিল “আপনি এই তক্তাপোষের নীচে গিয়ে চুপ করে বসে থাকুন।” মাষ্টার মহাশয়ের উদর বিশেষ স্থল বলিয়৷ তক্তাপোষের নীচে যাইতে অনেক কষ্ট পাইতে হইল, এমন কি দুই এক SAMMAAA AAAASAAA S