পাতা:ইন্দ্রচন্দ্র.pdf/৪৯

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


অষ্টম পরিচ্ছেদ । 86. হইতে গ্লাস লইয়। একমুট। মুড়ি রাজকুমারে মুখে দিলেন । স্লাজকুমার দায়ে পড়িয়া কতক থাইল, কতক ফেলিয়। দিল । আবার গ্লাস পূর্ণ হইল ; আবার মাষ্টীর মহাশয় পান করিলেন, শ্ৰাম বাবু পান করিলেন, সঙ্গে সঙ্গে পোষ্টমাষ্টার বাবুও অল্প মাত্রায় পান করিলেন । ক্রমে নৈশগগণ বিদীর্ণ করিয়। সঙ্গীত তরঙ্গ উঠিল । গর্দভ নিনাদে পোষ্টমাষ্টার বাবু গান ধরি লেন । 摯

  • কেঁদে বাঘ পড়েছে কলে। চারপো হলে আপনি ফলে— সেটা হালুম হালুম করে ॥” সঙ্গীত বন্ধ হইল ; ওয়াক্ ওয়াক্ ধ্বনি আরম্ভ হইল । হ্যামবাৰু পোষ্টমাষ্টার বাবুর মাথায় জল দিতে আরম্ভ করিলেন । মাথায় জলপড়ায় বমন বন্ধ হইল ; নেশা ও একটু নরম পড়িল । আবার গান আরম্ভ হইল। ঘুরিয়া ঘুরিয়া আবার রাজকুমারের পানের সময় আসিল—পূর্ণ গ্লাস রাজকুমারের হস্তে প্রদত্ত হইল । রাজকুমার বলিল, “আর না, এক গ্লাস খাবার কথা ক্তাতো হয়েচে ।”

“যখন থেয়েচো তখন তেপাত্র কর, গোজন্ম ছেড়ে গন্ধৰ্ব্ব জন্ম হ’ক ৷” পোষ্টমাষ্টার বাবু রাজকুমারের গ্লাস শুদ্ধ দক্ষিণ হস্ত মুখের দিকে ঠেলিয়া দিলেন । “খাচ্চি খাচ্চি’ বলিয়া রাজকুমার পুনরায় মদ্যপান করিল। আমার গীত আরম্ভ হইল, কিন্তু অধিকক্ষণ হইতে পাইল না ; বাহির হইতে কে কবাটে আঘাত করিল। ভিতর হইতে মাষ্টার মহাশয় জিজ্ঞাসা করিলেন “গুরু" । উত্তর হইল, “আজ্ঞ ই, কপাট খুলুন ।”