পাতা:ঐতিহাসিক চিত্র (তৃতীয় বর্ষ) - নিখিলনাথ রায়.pdf/১১৫

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


হোসেনসাহ । S O পতি চয়চাগের সহিত কুমিল্লা নগরীতে হোসেন সাহের সৈন্যের সংগ্রাম উপস্থিত হয়। সেই যুদ্ধে ত্রিপুরসৈন্যেরা পরাজিত হইয়া পশ্চাৎ হটিয়া গেলে, পাঠান সৈন্যেরা ক্রমশঃ রাজধানী রাঙ্গামাটির দিকে অগ্রসর হয় । কিন্তু ত্রিপুর সৈন্যেরা গোমতী নদীর বঁাধ ভাঙ্গিয়া দেয়। পাঠান সৈন্যেরা জলমগ্ন হইয়া আপনাদের প্রাণ বিসর্জন দিতে আরম্ভ করে। তাহারা নিরুপায় হইয়া পলায়ন করিতে আরম্ভ করিলে, ত্রিপুর সৈন্যেরা তাহাদিগকে আক্রমণ করিয়া নিহত করিয়া ফেলে । মহারাজ ধন্য মাণিক্য এই যুদ্ধের স্মৃতিচিহ্নস্বরূপ একটি দীঘী খনন করাইয়া তাহার তীরে বিজয়স্তম্ভস্বরূপ একটি মঠ নিৰ্ম্মাণ করিয়াছিলেন । তাহার পর হোসেনসহ পুনৰ্ব্বার এক বিরাট বাহিনীর সহিত হাতিয়ান EBDS DuDuD S BDBDBB YYS S KuDDS SDDDD S S S SBBDDBB Bu তাহার গতিরোধের জন্য অগ্রসর হইলেন। আবার কুমিল্লাতে উভয় পঙ্কের সংঘর্ষ উপস্থিত হইল । সেবার ও চয়চাগ পরাজিত হইয়া পশ্চাৎ হাঁটিয়া গেলেন, কিন্তু পুনর্বারা পাঠানদিগকে গোমতীর জলে ভাসাইয়া দিলেন। হাতিয়ান খাঁ অকৃতকাৰ্য্য হইয়া সুলতানের নিকট পািচছিলে, তিনি তঁাহাকে পদচ্যুত করেন। ইহার পর হোসেন সাহ তৃতীয়বার ত্রিপুরা আক্রমণ করেন। এবার তিনি কুমিল্লার পথ ছাড়িয়া রাজধানী কৈলারগড় অভিমুখে অগ্রসর হন। কৈলারগড়ের নিকট উভয় পক্ষের সংবর্ষ উপস্থিত হইলে, এবার ত্রিপুর সৈন্যেরা বাস্তবিকই পরাজিত হইয়াছিল । হোসেনসহ ত্রিপুরার কিয়দংশ অধিকার করিয়াও লইয়াছিলেন । কিন্তু তাহা অধিক দিন। আপনার ৰশে রাখিতে পারেন নাই, তাহা পরিশেষে আবার ত্রিপুররাজ্যভুক্তই এহইয়াছিল। পাৰ্ব্বত্য প্রদেশ সমস্ত জয় করিয়া ও তাহা স্বীয় অধিকারে না। রাখিতে পারায়, হোসেনসহ আপনার রাজ্য বহিরাক্রমণ হইতে রক্ষা করিবার জন্য স্থানে স্থানে দুর্গ নিৰ্ম্মাণ করিয়াছিলেন। তন্মধ্যে তিনি গণ্ডক নদীতীরে যে দুর্গ নিৰ্ম্মাণ BDBDBDS BDDD DBBBEBS BBB S MuuuDDD DDD DBBDBDBD BBDD D LL DDS লিকা নিৰ্ম্মাণ করিয়া গৌড়নগরকে সুশোভিত করিয়াছিলেন। তঁাহার সেই