পাতা:ঐতিহাসিক চিত্র (তৃতীয় বর্ষ) - নিখিলনাথ রায়.pdf/১১৭

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ccजनजांई । Y09P 'নিখাত ও বৃক্ষ প্রতিষ্ঠিত হইয়াছিল। এই সমস্ত কীৰ্ত্তির জন্য হােসেনসাহার নাম চিরস্মরণীয় হইয়া আছে। সৰ্ব্বাপেক্ষা হোসেন সাহ হিন্দু মুসল্মানের প্রতি সমতা দেখাইয়া সাধারণের প্ৰশংসাভাজন হইয়াছিলেন । আমরা পূৰ্ব্বে উল্লেখ করিয়াছি যে, তিনি হিন্দুর অধীনে প্ৰথমে স্বয়ংই কাৰ্য্যে নিযুক্ত হন, তজ্জন্য হিন্দুদিগের সহিত তাহার সৌহার্দ স্থাপিত হইয়াছিল, যদিও রাজা হইয়া তিনি মুসন্মান ধৰ্ম্ম বিস্তারের জন্য উড়িষ্যা প্ৰভৃতি জয়কালে দেবদেবীর মূৰ্ত্তি ভঙ্গ করিয়াছিলেন, */ তাহা কেবল রাজ্য বিস্তার উপলক্ষে বলিয়াই বোধ হয়। মুসল্মানগণ নূতন রাজ্য বিস্তারের সঙ্গে ঐ রূপে ধৰ্ম্ম বিস্তারও করিতেন। কিন্তু তিনি হিন্দুদিগের গুণগ্রামে মুগ্ধ হওয়ায় তাহাদিগকে উচ্চ রাজপদ প্ৰদান করিতে ত্রুটি করিতেন না। রূপ ও সনাতনের কথা পুৰ্ব্বেই উল্লিখিত হইয়াছে। তদ্ভিন্ন পুরন্দর খ্যা ও মালাধর বসু প্ৰভৃতি তাহার সভাষদ বা কন্মাচারা ছিলেন । মালাধর বসুকে তিনি গুণরাজ খাঁ উপাধি প্ৰদান করিয়াছিলেন । এতদ্ব্যতীত হিন্দু C 9 ऊंाश sSDD DBBDD DOBD SS DBDBB SAA0 0DBBBB SKKBBD DDDDBD প্ৰতিপালন করায় তাহারা তাহার প্রতি যারপর, ঈ প্রা ৩ হইয়া উঠে । হিন্দুদিগকে রাজকম্মে নিযুক্ত করিয়া, হিন্দু প্ৰজাদিগকে স্নেহচক্ষে দেখিয়া হোসেনসাহ যেরূপ হিন্দ প্রতির দৃষ্টান্ত দেখাইয়া গিয়াছেন, তাহ। আর কোন পাঠান নৃপতি দেখাইতে পারেন নাই। হোসেন সাহার রাজত্বকালে মহা প্ৰ দু, চৈতন্যদেবের আবির্ভাব হয় । তাহার প্রচারিত নব বৈষ্ণব ধন্মের প্রেম বন্যায় যখন সমস্ত বঙ্গভূমি প্লাবিত হইতে থাকে, তখন হোসেনসাহার দরবার। পৰ্য্যন্ত তাহাতে ভাসমান হইয়। LLS S DDDBSBBtB BDBBB BBDC DDDDDSLLS DBB DDDDD DBBK BDDGLK লাভ করিয়াছিলেন । যদিও সে সময়ে মুসন্মান প্রচারকগণ ইসলাম ধৰ্ম্ম “ৰে হুসেন সাহা সৰ্ব উড়িষ্যার দেশে । দেবমূৰ্ত্তি ভাজিলেক দেউল বিশেষে।” চৈতন্য ভাগবত অত্য খণ্ড ।