পাতা:ঐতিহাসিক চিত্র (তৃতীয় বর্ষ) - নিখিলনাথ রায়.pdf/২৭৯

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


“রহস্য নহে প্রভো” বলিয়া বিন্দুমতী কঁাদিয়া ফেলিলেন। রামচন্দ্র কিছুক্ষণ নীরব হইয়া রহিলেন, পরে আবার বলিতে আরম্ভ করিলেন,- “রহস্য বৈকি, নতুবা যে বিবাহসময়েই স্বীয় জামাতাকে বধ করিয়া তাহার রাজ্য অধিকার করিতে চাহে, তাহার কন্যা কি কখনও কাহারও পদসেবার প্রয়াসী হইতে পারে ?” বিন্দুমতী কঁাদিতে কাঁদিতে বলিতে লাগিলেন,- “কোন প্ৰভো এ দাসীর অপরাধ কি ? দাসী তখনইত প্রভুর পদতলে সমস্ত বিদন করিয়াছিল।” “হঁ। তা বটে, অবশ্য তুমি আমার প্রাণ রক্ষা করিয়াছিলে, সে জন্য আমি চামাকে কিছু পুরস্কার দিব মনে করিয়াছি।” “দাসী চরণসেবা ভিন্ন আর কোন পুরস্কার চাহে না ।” “পিতৃভ্ৰাতৃহন্তা, জামাতুবিধোচ্ছর কন্যার হস্তে চরণসেবা ! কখনই নয়।” এই বলিয়া রামচন্দ্ৰ উঠিয়া বসিলেন । “স্বামিন, প্রভো, ক্ষমা কর, যশোরে জন্ম বলিয়া যদি হতভাগিনী অপ- “ DDSDBDS DDB BDDD SMOLS DBBBBBDD DBBBBDLD DB DDD হইবে না ?” SDS DBDDBD BD S DBB BBuY BttBD DuBDBD DDBBDB BBD DDDS লেন। বিন্দুমতী অমনি তাহার চরণ জড়াইয়া ধরিতে গেলেন। পা ছাড়াইয়া bামচন্দ্ৰ নিমিষের মধ্যে দ্বারের নিকট আসিয়া তাহা গুলিয়া ফেলিলেন ও দ্বিকোষ্ঠ হইতে বাহির হইয়া গেলেন। বিন্দুমতা “মা যশোরেশ্বরি, তোমার মনে এই ছিল”। বলিয়া ধূলায় লুটাইয়া কঁাদিতে লাগিলেন। রাজমাতা মনে করিয়াছিলেন যে, উভয়ের সাক্ষাৎ হইলে মনের গোল विबिा बाहटव। डिनि বুঝিতে পারেন নাই যে, অভিমান রামচন্দ্ৰকে অৱত জগতে লইয়া গিয়াছিল। রামচন্ত্রের শয়নপ্রকোষ্ঠ হইতে চলিয়া left কথা শুনিয়া তিনি ক্ষিপ্ৰগতিতে তথার উপস্থিত হইলেন। দেখিলেন, রিমুমতী যুলায় পড়িয়া কঁদিতেছেন। তিনি ভাষাকে তুলিয়ারশিলেন। ।