পাতা:ঐতিহাসিক চিত্র (তৃতীয় বর্ষ) - নিখিলনাথ রায়.pdf/৭৮

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


१२ पैडिशनिक ष्यि। একটা কথা আছে, জীবদ্দশায় কবির সমাদর হয় না। হাফেজের বেলায় DB DBDE LLL uDD S SDBDBDB DDBDD DDDBDB DDDDS D S S uDBBB BBBS সৌরভ দেশবিদেশে বিকীর্ণ হইয়া পড়িয়াছিল। বহু স্থান হইতে তাঁহাকে লাইবার জন্য রাজন্য বর্গ বহু চেষ্টা করিয়াছিলেন ; কিন্তু হাফেজ নিজের শান্তরসাম্পদ নির্জন কুটীরে নিরুদ্বেগে বাস করিতেই ভাল বাসিতেন। জনকল্লোলমুখরিত সমৃদ্ধ সহর বা বিলাসবৈচিত্ৰ্যময় রাজদরবায় কখনও তঁাহার চিত্তকর্ষণ করিতে সমর্থ হাইত না । এক সময়ে তিনি বোগদাদের সুলতানের YBDKDD DDBD uDuBBB S SDBD BB uDD DBDBD DDD SSS DDBBB ইতিহাসের সহিত ও হাফেজের সম্পর্ক আছে। বঙ্গাধিপ সুলতান গিয়াসুদ্দীন দুশাসক বলিয়া খ্যাতিলাভ করিয়াছিলেন । স্বাধীনচেতা কাজির নিরপেক্ষ বিচারে সন্তুষ্ট হইয়া গিয়াসুদ্দীন যে প্ৰকৃত মহন্ত্রের প্রকৃষ্ট পরিচয় দিয়াছিলেন, তাহা বঙ্গীয় পাঠকের অবিদিত নাই। গিয়াসুদ্দীন অত্যন্ত আমোদপ্ৰিয় লোক ছিলেন । কোন সময়ে দারুণ রোগগ্ৰস্ত হইয়া তিনি একখানি BDDD DDD D DB SS S DBDBBD DBBBS SBBDS SDBS uBuDBDB SDDDB পর তিনজন নির্দিষ্ট উপপত্নী তাহার মৃতদেহ ধৌত করিবেন। ভাগ্যক্রমে KBBDD DBuBB BBDDuD DS DD DBBDYS SuBD D SDBDBB “নোসালী” বা ধৌতকারিণী এই অসম্মানসূচক আখ্যা প্ৰদান করিয়া সর্বদা উপহাস করিতে লাগিল। এই কথা গিয়াসুদীনের কৰ্ণে পৌছিলে তিনি তৎক্ষণাৎ একটি কবিতার একটি মাত্র চরণ রচনা করেন, এবং অনেক চেষ্টা করিয়াও স্বয়ং তাহার। আর পাদপূরণ করিতে পারিলেন না। গিয়াসুদ্দীন । সাহিত্যের সমাদর . করিতেন ; তাহার রাজসভা পণ্ডিত ও কবিসমাগমে অলঙ্কত ছিল। সভাকবিগণও তদীয় ইচ্ছানুরূপ পাদপূরণ করিতে সক্ষম হইলেন না । হাফেজের নাম এই সময় দেশদেশান্তরে পরিব্যাপ্ত হইয়াছিল। গিয়াজুদ্দীন বহুমূল্য উপহার-স্ত্রব্যসহ পাদপূরণের জন্য উক্ত কবিতাপঙক্তি সিরাজ নগরে কবিবার হাফেজের নিকট প্রেরণা করিলেন । পত্রিবাহকের উপর এয়ািপও আদেশ ছিল যে, তিনি যে কোন প্রকারে কবিকে সন্তুষ্ট করিয়া যাহাতে তঁাহাকে