পাতা:কাব্যগ্রন্থ (চতুর্থ খণ্ড).pdf/১৪৫

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


পসারিণী ব্যথিত চরণ দুটি ধুয়ে নিবে জলে, বনফুলে মালা গাঁথি পরি’ নিবে গলে । আম্রমঞ্জরীর গন্ধ বহি’ আনি মৃত্যুমন্দ বায়ু তব উড়াবে অলক, ঘুঘু ডাকে ঝিল্লিরবে কি মন্ত্র শ্রবণে কবে, মুদে যাবে চোখের পলক । পসরা নামায়ে ভূমে যদি দুলে পড় ঘুমে, অঙ্গে লাগে স্থখালসঘোর ; যদি ভুলে তন্দ্রাভরে ঘোমটা খসিয়া পড়ে, তাহে কোনো শঙ্কা নাহি তোর । যদি সন্ধ্যা হ’য়ে আসে, সূৰ্য্য যায় পাটে, পথ নাহি দেখা যায় জনশূন্য মাঠে, নাই গেলে বহুদূরে, বিদেশের রাজপুরে, নাই গেলে রতনের হাটে । কিছু না করিয়ো ডর, কাছে আছে মোর ঘর, পথ দেখাইয়া যাব আগে ; শশিহীন অন্ধ রাত, ধরিয়ো আমার হাত যদি মনে বড় ভয় লাগে । শয্যা শুভ্ৰফেননিভ স্বহস্তে পাতিয়া দিব, গৃহকোণে দীপ দিব জালি’, > >సా