পাতা:কাব্যগ্রন্থ (চতুর্থ খণ্ড).pdf/৪৪২

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ক্ষণিকা প্রভাত না হ’তে কখন আবার গৃহকোণমাঝে আসিয়া, বাতায়নে বসে’ বিহবল বীণা বিজনে বাজাই হাসিয়া । পথ দিয়ে যেবা আসে যেবা যায় সহসা থমকি চমকিয়া চায়, মনে করে তা’রে ডেকেছি । জানে না ত কেহ কত নাম দিয়ে এক নামখানি ঢেকেছি । ভোরের গোলাপ সে গানে সহসা সাড়া দেয় ফুলকাননে, ভোরের তারাটি সে গানে জাগিয়া চেয়ে দেখে মোর আননে । সব সংসার কাছে আসে ঘিরে, প্রিয়জন সুখে ভাসে আঁখিনীরে, হাসি জেগে ওঠে ভবনে । যে নামে যে ছলে বীণাটি বাজাই সাড়া পাই সারা ভুবনে । নিশীথে নিশীথে বিপুল প্রাসাদে তোমার মহলে মহলে, 8 > ご