পাতা:কাব্যগ্রন্থ (দশম খণ্ড).pdf/৫২

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


গাথি গাথি সাজায়ে দে মোরে, কবরী ভরিয়ে ফুলভার ! তুলে দেলো চঞ্চল কুন্তল কপোলে পড়িছে বারেবার ! প্রথম । আজি এত শোভা কেন । আনন্দে বিবশী যেন । দ্বিতীয়া । বিস্বাধরে হাসি নাহি ধরে ! লাবণ্য ঝরিয়া পড়ে ধরাতলে ! প্রথমা ! সখি, তোরা দেখে যা, দেখে যা, তরুণ তনু, এত রূপরাশি বহিতে পারে না বুঝি আর ! মিশ্র ভূপালী—একতাল। তৃতীয় সখী। সখি, বহে’ গেল বেলা, শুধু হাসি খেলা, এ কি আর ভালো লাগে ! আকুল তিয়াষ, প্রেমের পিয়াস, প্রাণে কেন নাহি জাগে ! কবে আর হবে থাকিতে জীবন আঁখিতে আঁখিতে মদির মিলন, মধুর হুতাশে মধুর দহন, নিত-নব অমুরাগে ! তরল কোমল নয়নের জল, নয়নে উঠিবে ভাসি’ । 8е