পাতা:কাব্যগ্রন্থ (নবম খণ্ড).pdf/৫৮৪

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


কান্ধনী বুঝতে পারিনে অথচ তোমার স্বরটা আমার বুকে গিয়ে বাজে। আর শ্রুতিভূষণের ঠিক তা’র উণ্টে।; তা’র কথাগুলো খুবই স্পষ্ট বোঝা যায় হে,—ব্যাকরণের সঙ্গেও মেলে—কিন্তু স্থরটা—সে কি আর বলব ! মহারাজ, আমাদের কথা ত বোঝবার জন্যে হয় নি, বাজ বার জন্যে হয়েচে । এখন তোমার কাজটা কি বল ত কবি ? মহারাজ, ঐ যে তোমার দরজার বাইরে কান্না উঠেচে ঐ কান্নার মাঝখানদিয়ে এখন ছুটতে হবে । ওহে, কবি, বল কি তুমি ! এ সমস্ত কেজো লোকের কাজ, দুর্ভিক্ষের মধ্যে তোমরা কি করবে ? কেজো লোকেরা কাজ বেস্তুরো করে ফেলে, তাই, সুর বাধুবার জন্যে আমাদের ছুটে আসতে হয় । ওহে কবি, আর একটু স্পষ্ট ভাষায় কথা কও ! মহারাজ, ওরা কৰ্ত্তব্যকে ভালবাসে বলে’ কাজ করে আমরা প্রাণকে ভালবাসি বলে? কাজ করি—এইজন্তে ওরা আমাদের গাল দেয়, বলে নিষ্কৰ্ম্ম, আমরা ওদের গাল দিই, বলি নিজঞ্জাব ! কিন্তু জিৎটা হ’ল কা’র ? আমাদের, মহারাজ, আমাদের ! তা’র প্রমাণ ? পৃথিবীতে যা, কিছু সকলের বড় তা’র প্রমাণ নেই। QW)●