পাতা:কাব্যগ্রন্থ (নবম খণ্ড).pdf/৬৬

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


রাজা কুম্ভ। যে পারে সে বোধ হয় যা চায় তাই পায় । ঠাকুৰ্দ্দা । সে যে কিছু চায় না । ভিক্ষুকের কৰ্ম্ম নয় রাজাকে চেনা। ছোট ভিক্ষুক বড় ভিক্ষুককেই রাজা বলে’ মনে করে' বসে । আজ যে লোকটা গা-ভর গয়না পরে’ রাস্তার দুই ধারের লোকের দুই চক্ষুর কাছে ভিক্ষে চেয়ে বেড়িয়েছে তোরা লোভীরা ত’কেই রাজা বলে ঠাউরে বসে আছিস্ --- ঐ যে আমার পাগল আস্চে । তায় ভাই আয়—-আর ত বাজে বক্তে পারিনে— একটু মাতামাতি করে নেওয়া যাক ! ( পাগলের প্রবেশ ও গান ) তোরা যে যা বলিস ভাই আমার সোনার হরিণ চাই । সেই মনোহরণ চপল চরণ সোনার হরিণ চাই । সে যে চমকে বেড়ায় দৃষ্টি এড়ায় যায় না তা’রে বাধা, তা’র মাগাল পেলে পালায় ঠেলে লাগায় চোখে দাদা, তবু ছুটুব পিছে মিছে মিছে পাই বা নাহি পাট আমি আপন মনে মাঠে বনে উধাও হ’য়ে ধাই ॥ 8૨