পাতা:কাব্যগ্রন্থ (পঞ্চম খণ্ড).pdf/২০৭

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


পশে না হৃদয়মাঝে । ছেড়ে দাও মোরে, ছেড়ে দাও ! পতিরক্তসিক্ত স্নেহডোরে বেঁধো না আমায় । н বিনায়ক রাও কন্যা নহেক পিতার । শাখাচু্যত পুষ্প শাখে ফিরেনাক আর । কিন্তু রে শুধাই তোরে কারে কস পতি লজ্জাহানা ! কাড়ি নিল যে স্লেচ্ছ দুৰ্ম্মতি জীবাজির প্রসারিত বরহস্ত হ’তে বিবাহের রাত্রে তোরে—বঞ্চিয়া কপোতে শ্যেন যথা ল’য়ে যায় কপোত-বধূরে আপনার স্লেচ্ছ নীড়ে,—সে তুষ্ট দস্থ্যরে পতি ক’স তুই !—সে রাত্রি কি মনে পড়ে ? বিবাহ-সভায় সবে উৎস্থক অন্তরে বসে’ আছি,—শুভলগ্ন হ’ল গতপ্রায়,— জীবাজি আসে না কেন সবাই শুধায়, চায় পথপানে । দেখা দিল হেনকালে মশালের রক্তরশ্মি নিশীথের ভালে, শুনা গেল বাদ্যরব । হর্ষে উচ্ছসিল অন্তঃপুরে হুলুধ্বনি । দুয়ারে পশিল ృ:SVD